নাটোরে বাংলাদেশ এপেক্স ক্লাব জেলা ৯ এর বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

আপডেট: অক্টোবর ১৬, ২০১৬, ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

নাটোর অফিস
সুপ্রিম কোর্ট হাইকোর্ট ডিভিশানের জাস্টিস রুহুল কুদ্দুস বলেছেন, সমাজের কম সৌভাগ্যবানদের কল্যাণের জন্য এপেক্স ক্লাব কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এপেক্সের প্রতিটি ক্লাবের সদস্যদের  এপেক্সের আদৃশকে নিজের জীবনে ধারণ করে কম সৌভাগ্যবানদের সেবা তথা উন্নততর সমাজ গঠনে কাজ করে যেতে হবে। এর মাধ্যমেই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে এবং দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গড়া যাবে। প্রত্যেককে ব্যক্তিকেন্দ্রিকতা থেকে বেরিয়ে এস সমাজের জন্য কাজ করতে হবে। যিনি নেতৃত্বে আসবেন তিনি তার নিজস্ব মেধা ও বুদ্ধিমত্তা দিয়ে এপেক্স আদর্শের ধারণাকে প্রতিষ্ঠিত করতে আন্তরিকভাবে কাজ করবেন। দুঃস্থ মানবতার সেবা করবেন তবেই সমাজের উন্নয়ন হবে। জাস্টিস রুহুল কুদ্দুস শনিবার নাটোর এপেক্স ক্লাবের আয়োজনে বাংলাদেশ এপেক্স জেলা-৯এর বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 
দুটি পর্বে বিভক্ত দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে জেলা-৯ এর গভর্নর এপেক্সিয়ান অ্যাডভোকেট আব্বাস আলীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা ও দায়রা জজ রেজাউল করিম, এপেক্সে বাংলাদেশের জাতীয় সভাপতি এপেক্সিয়ান অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম, সহসভাপতি এপেক্সিয়ান খুরশিদ-উল-আলম অরুন, নিকট অতিত জাতীয় সভাপতি এপেক্সিয়ান অ্যাডভোকেট নুরুর রহমান, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারম্যান এপেক্সিয়ান ডা. আবুল কালাম আজাদ। সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে জেলা-৯ এর নাটোর, রাজশাহী বরেন্দ্র, পদ্মা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ এই ৬টি ক্লাবের বার্সিক প্রতিবেদন পেশ করেন স্ব-স্ব ক্লাব সভাপতিবৃন্দ। পরে ১৯১৭ সালের জন্য জেলা-৯ এর গভর্নরের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নাটোর এপেক্স ক্লাবের নিকট অতিত সভাপতি এপেক্সিয়ান রওশন আরা শ্যামলী গভর্নর হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বি তায় নির্বাচিত হন। সম্মেলনে অতিথিবৃন্দ,এপেক্সে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, দেশের বিভিন্ন ক্লাব থেকে আগত দেড় শতাধিক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ