নাটোরে বিক্রিত শিশু ফিরে পেলেন মা

আপডেট: মার্চ ৩, ২০২১, ৯:০৬ অপরাহ্ণ

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি:


নাটোরের বড়াইগ্রামে সুদ মহাজনের চাপে বিক্রির ২ দিন পর শিশুটিকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলেন উপজেলা প্রশাসন। বুধবার (০৩ মার্চ) দুপুরে ইউএনও কার্যালয়ে শিশুটিকে মায়ের কোলে তুলেদেন নাটোরের জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ। এসময় বড়াইগ্রামের ইউএনও জাহাঙ্গীর আলম, অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম, নগর ইউপি চেয়ারম্যান নিলুফার ইয়াসমিন ডালু উপস্থিত ছিলেন।
শিশুকে ফিরিয়ে দেয়ার পাশাপশি জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক তাকে নগদ অর্থ, ফলমুল ও খাবার দেয়া হয় এবং স্থায়ী কর্মসংস্থানের জন্য একটি ভ্যানগাড়ী , উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে জমিসহ একটি ঘর এবং চলমান ঋণ পরিশোধের, নগর ইউপি চেয়ারম্যান ভিজিডি কার্ড করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। একই সাথে শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করে ইউএনও।
এর আগে গত সোমবার সুদি মহাজনের চাপে বাধ্য হয়ে উপজেলার নগর ইউনিয়নের কয়েন গ্রামে ভ্যানচালক রেজাউল করিম চাঁদনী আক্তার লিজা নামে তার ২২ দিন বয়সী কন্যা শিশুকে এক লাখ ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাটি গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে রাতেই ভুক্তভোগির বাড়িতে গিয়ে অনুসন্ধানে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করেন ইউএনও জাহাঙ্গীর আলম। পরে বিক্রিত শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় শিশুটিকে ফিরিয়ে দেয়া হলো।
শিশুকে ফিরে পেয়ে মা ফুলজান বেগম অশ্রু সজল কন্ঠে বলেন, একমাত্র কণ্যা শিশুকে ফিরে পেয়ে যে খুশি লাগছে তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। এজন্য ডিসি, ইউএনও স্যার এবং সাংবাদিকদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ ও ইউএনও জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বিষয়টি দুঃখ জনক তাই সাধ্যের সবটুকু সহয়তা করা হয়েছে।