নাটোরে সিরিয়াল কিলার বাবু শেখসহ গ্রেফতার ৪

আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০১৯, ১:৩৭ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


আসাদুল ও বাবু শেখ-সোনার দেশ

নাটোরের রেলওয়ে প্লাটফর্ম থেকে ৮টি হত্যা মামলার আসামী সিরিয়াল কিলার বাবু শেখসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে নাটোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে এক প্রেস ব্রিফিংএর মাধ্যমে সাংবাদিকদের এ তথ্য দেন রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি একেএম হাফিজ আক্তার বিপিএম বার।
প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গত ৯ অক্টোবর নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তীপুর এলাকার রেহেনা বেগম (৬০) ও লালপুর উপজেলায় চংধুপইল এলাকার আনসার সদস্য সাবিনা পারভীন সাহেরাকে হত্যা করা হয়। এ দুটি ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হলে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এরই এক পর্যায়ে গত ১৫ অক্টোবর পুলিশ সিংড়া থেকে রুবেল আলীকে গ্রেফতার করে। তার দেয়া তথ্যমতে একই দিন লালপুর উপজেলায় চংধুপইল থেকে চুরি করা স্বর্ণালঙ্কার ক্রেতা নাটোর শহরের স্বর্ণ ব্যবসায়ী লিটন খাঁকে গ্রেফতার করা হয়। এ দুইজনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৬ অক্টোবর নাটোর রেলওয়ে স্টেশন থেকে আসাদুলকে গ্রেফতার করা হয়। আসাদুল জানায় চুরি করার সময় তার সঙ্গে রুবেল আলী ও বাবু শেখ ছিল। এরপরে ১৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় একই স্থান থেকে বাবু শেখকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে বাবু শেখ স্বীকার করে সে নাটোরের লালপুর, বাগাতিপাড়া, বাঁশিলা, নলডাঙ্গা, টাঙ্গাইল ও নওগাঁ জেলায় ৮ টি হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করেছে। তারা মৎস্য শিকারীর (জেলে) বেশে বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ায় ও চুরির পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা মাফিক সহযোগিদের সাহায্যে সুবিধাজনক বাড়িতে প্রবেশ করে ধর্ষণ শেষে হত্যা ও চুরি করে। সিরিয়াল কিলার বাবু শেখ নওগাঁ জেলার রাণীনগর থানার মৃত জাহের আলীর ছেলে। অত্যধিক চুরি করায় তাকে এলাকাবাসী গ্রাম ছাড়া করেছিল। সে মাছ ধরার চেয়ে হত্যাকে অনেক সহজ মনে করে। তবে সে নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের নারীদের হত্যা করে আসছিল।
প্রেস ব্রিফিংকালে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বড়াইগ্রাম সার্কেল হারুন-অর রশিদ, নাটোর জেলা ট্রাফিক অফিসের টিআই বিকর্ণ কুমার চৌধুরী, নাটোর ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈকত হাসান উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ