নাটোর পৌরসভার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দু-গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

আপডেট: এপ্রিল ১৭, ২০২৪, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ


নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোর পৌরসভার ৯৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ড্রেনেজ নির্মাণ কাজের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দু-গ্রুপের সংঘর্ষে সিহাব হোসেন শিশির (২৫) নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে নাটোর পৌরসভা চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশিরের বাড়ি পৌরসভার মল্লিকাটি মহল্লায়। সে ওই এলাকার মোজাহার হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ দুজনকে আটক করেছে। এরা হলো- নাটোর পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান হিরো ও একই এলাকার যুবলীগ নেতা হাসানুর রহমান হাসু। নাটোর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাটোর পৌরসভার মেয়র ও স্থানীয়রা জানায়, নাটোর পৌরসভার কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান হিরো ও যুবলীগ নেতা হাসানুর রহমান হাসুর মধ্যে নাটোর পৌরসভার ৯৮ লক্ষ টাকার একটি টেন্ডারের টাকা পাওনা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আজ (মঙ্গলবার) পৌর মেয়রের সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে বিরোধ নিস্পতির জন্য একটি সালিশি বৈঠক বসে। এরই মধ্যে উভয়পক্ষ পৌরসভা চত্বরে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় শিশির নামে এক যুবককে নাটোর সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এব্যাপারে নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরী জলি জানান, নাটোর পৌরসভার ৯৮ লক্ষ টাকার ড্রেনেজ নির্মাণ কাজের টেন্ডার, পিংকি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান পায়। ওই কাজ তিন মাস আগেই শেষ হয়েছে। হাসু প্রায় প্রতিদিন পৌরসভায় এসে তার কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে নালিশ দেয়। এজন্য উভয়কে পৌরসভায় আসতে বলেছিলাম। এতে অফিসের নীচে তাদের মধ্যে কথা কাটা-কাটি এবং মারামারি এক পর্যায়ে একজন মারা গেছে।

অপর কাউন্সিলর নাফিউল ইসলাম-অন্তর বলেন, এত টাকার একটা কাজ পিংকি কনসট্রাকশন মালিক আশফাক কিভাবে একজন টোকাইকে দেয়? যার টাকা পয়সা নাই, যে সব সময় মানুষের কাছ থেকে টাকা পয়সা নিয়ে চলে তাকে দিয়েছে কাজ। এটা একটা দুঃখজনক, নাটোর পৌরসভার ভিতরে খুন হয়েছে।

ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এ ঘটনায় একজন মারা গেছেন। মরদেহ হাসপাতালে রয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা চলছে বলে তিনি জানান।

নাটোর জেলা পুলিশ সুপার এসপি তারিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার সংবাদ পাওয়ার পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান হিরো ও যুবলীগ নেতা নেতা হাসানুর রহমান হাসুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version