নাটোর-১ আসনে স্বতন্ত্রের চ্যালেঞ্জের মুখে নৌকার প্রার্থী!

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০২৩, ৭:২৫ অপরাহ্ণ


লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি:


আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল। মনোনয়ন ঘোষণার পর কেউ স্বতন্ত্র ভোটে অংশগ্রহণ করলে দলীয়ভাবে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না থাকায় আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়াই করছেন নির্বাচনে। আবার বাকি রয়েছে ১৪ দলের আসন বণ্টনের হিসাব-নিকাশ। এতে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীর কপাল পোড়ার শঙ্কা রয়েছে।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নাটোর-১ আসনে মনোনয়নপত্র কিনেছিলেন ১৪ জন। এর মধ্যে ৫ জনের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। মোট বৈধ প্রার্থীর সংখ্যা ৯ জন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীই রয়েছে আওয়ামী লীগ নেতারাই।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এই আসনে অধিকাংশ প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মাঠে রয়েছেন। আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও বিভক্ত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নিয়ে মাঠে কাজ শুরু করেছেন। এতে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পরও নৌকার প্রার্থী ফুরফুরে মেজাজে দিন কাটাতে পারছেন না। অতীতে দলীয় নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন, এলাকার সার্বিক উন্নয়ন কাজ, করোনাকালে মাঠে থাকা না থাকা, নিজস্ব ভোট ব্যাংকসহ বিভিন্ন দিক বিবেচনায় নিতে হচ্ছে প্রার্থীদের। এসব দিক বিবেচনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীরা যেন গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

বিএনপি ভোটে অংশগ্রহণ না করলেও স্বতন্ত্রসহ অন্যান্য দলের প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করার কারণে এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভোট হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দল থেকে মনোনয়ন না পেলেও ভোটের হিসাব নিকাশে স্থানীয়ভাবে জনপ্রিয়তা প্রমাণের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

নাটোর-১ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ। দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে মনে করছেন ভোটাররা।

তবে এখানে নৌকার প্রার্থী পরিবর্তনেরও শঙ্কা রয়েছে। কারণ এই আসনটি একাধিকবার জোটকে ছেড়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। ১৪ দলের আসন বণ্টনে এই আসন আওয়ামী লীগ এবার ছাড়বে কিনা এটা নিয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয় নি। এখানে ১৪ দলের প্রার্থী রয়েছে চারজন। তারা হলেন ওয়ার্কার্স পার্টির ইব্রাহীম খলিল, জাতীয় পার্টির ব্যারিস্টার আশিক হোসেন, জাসদের জামাল উদ্দিন ফারুক ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির লিয়াকত আলী।

নির্বাচনী পরিবেশ সম্পর্কে জানতে চাইলে সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীমা সুলতানা মুঠোফোনে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয় নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ