নানা প্রতিকুলতার মাঝে সেবার মান বেড়েছে শিবগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসে

আপডেট: এপ্রিল ২, ২০২৪, ১২:০২ অপরাহ্ণ

শিবগঞ্জ(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)সংবাদদাতা:


নানা প্রতিকুলতার মাঝেও শিবগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসের সেবামূলক কাজের মান বেড়েছে। বেড়েছে নারী সচেতনতা। কমছে নারী নির্যাতন। এ অফিসের উদ্যোগে সচেতনতা বৃৃদ্ধিতে উঠান বৈঠক,বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ কমিটি, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি শিশু শ্রম পরিবীক্ষণ কমিটি কিশোর –কিশোরী ক্লাব গঠনের মাধ্যমে নারীদের নিয়ে বিভিন্ন জাতীয় দিবস পালন,,বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে ব্যাপক প্রচারণা মাধ্যমে সবধরনের সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিশেষ করে নির্যাতিত নারীদের বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতি বুধবার গণশুনানী শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে কমেছে নারী নির্যাতন। শিবগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিস সূত্রে জানা গেছে ২০১১ -২০১২ অর্থ বছর থেকে ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছর পর্যন্ত ১০,৬৭৪ জন অসহায় ও দু:স্থ নারীদের মাঝে ভিজিডি কর্মসূচীর আওযায় প্রতিমাসে ৩০ কেজি করে মোট ৭৬৮৫.২৮ মেট্রিক টন চাল বিতরণ করা হয়েছে।

এ কর্মসূচীর পরিধি প্রতি বছরই বৃদ্ধি পাচ্ছে। শিশু ও মাকে সুস্থ রাখতে দরিদ্র মার মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান কর্মসূচীর আওয়াতায় যখন ২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে ২৫৫জন দরিদ্র মাকে ৩০লাখ ৬০হাজার টাকা ভাতা প্রদান করা হয়েছিল , তখন ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৫২১৬ জন দরিদ্র মাকে ৯ কোটি ৩৮লাখ ৮৮হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে এবং ২০০৯-২০১০ অর্থ বছর হতে ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছর পর্যন্ত মোট ৫৪৩০জন দরিদ্র মাকে মোট ২২ কোটি ৬২লাখ ৬৩ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে। কর্মজীবি ল্যাকটিং মাদার সহায়তা তহবিল কর্মসূচীর আওয়াতায় ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছর থেকে ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছর পর্যন্ত ১৪০০জনকে ৩ কোটি ২৫লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে।

২০০৯-২০১০ অর্থ বছর হতে ২০২০-২০২১ অর্থ বছর পর্যন্ত মোট ১০৬টি অনুমোদিত স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতিকে ১৮লাখ ৮৪ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। জয়িতা অণে¦ষণে বাংলাদেশ এর আওয়তায় ২০১২-২০১৩ অর্থবছর হতে ২০২১-২০২২অর্থ বছর পর্যন্ত জয়িতার সংখ্যা ৪৪ জন। অসহায় ও দু:স্থ মহিলাদের স্বাবলম্বী করতে ক্ষুদ্র লোন কার্যক্রমের মাধ্যমে ২০০৯-২০১০অর্থ বছর হতে ২০২২-২০২৩ অর্থ বছর পর্যন্ত ১০৮জনকে ১৭লাখ ৭০হাজার টাকা লোন দেয়া হয়েছে।

তাছাড়া বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অসহায় ও দু:স্থদের স্বাবলম্বী করতে ২০১৮-২০১৯অর্থ বছর হতে ২০২২-২০২৩ অর্থ বছর পর্যন্ত ৭শ জন প্রশিক্ষাণ প্রাপ্ত নারী কে প্রশিক্ষণ বাবদ ৬৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে। এ বিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার উম্মে সুমাইয়া বলেন , বর্তমান সরকারের নির্দেশনা মত অসহায় ও দু:স্থ নারীদের সেবা, নারী নির্যাতন বন্ধ,শিশু শ্রম বন্ধ বাল্য বিয়ে রোধ প্রভৃতি ক্ষেত্রে অনেকটা সফল হয়েছি। তবে বাল্য বিয়ে রোধ ও মাতৃত্বকালীন ভাতা ও ভিজিডি কর্মসূচী শতভাগ অনিয়ম মুক্ত করতে বেশ হিমশিম খেতে হচ্ছে।

তিনি আারো বলেন যে কোন অনিয়ম বা দূর্নীতির ব্যাপারে কেউ লিখিত অভিযোগ করলে আমরা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারবো। মাতৃত্বকালীন ভাতার তালিকা তৈরীর ক্ষেত্রে আমাদের অফিস থেকে অনিয়ম বা দূর্নীতি করার কোন সুযোগ নেই। তবে বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা নির্দিষ্ট সময়ের শেষ দিনে একেবারে সুনিদিষ্ট তালিকা দেয়ায় যাচাই বাছাই করার কোন সুযোগ পাই ন্।াতবে এব্যাপারে আমি আমার উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

তিনি বলেন নিয়ম অনুযায়ী যে কোন গর্ভবতী মা ও শিশুর বয়স ছয় মাসের নিচে হলে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন।পরে যাচাই বাছাই করে বিধি মোতাবেক তালিকা করাই হলো নিয়ম। অনিয়ম ও দূর্নীতি মুক্ত তালিকা তৈরীর জন্য আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো। উল্লেখ্য যে এ দুটি প্রকল্পে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কিছু দালাল চক্র দীর্ঘদিন যাবত ১০ থেকে ১৪ হাজার করে নিয়ে গর্ভবতী ও ছয় মাসের বয়সের নীচের শিশুদের মায়ের নিকট হতে মাতৃত্বকালী ভাতা ও অসহায় ও দু:স্থদের নিকট ভিজিপি কার্ড করে দিচ্ছে বলে একাধিক গোপন সূত্রে জানা গেছে। গোপন সুত্রে জানা গেছে টাকা দিয়ে অনেকেই প্রতারণাও শিকার হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ