নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জনও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

আপডেট: এপ্রিল ১১, ২০২০, ৮:২৫ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তারের ‘এপিসেন্টার’ হয়ে ওঠা নারায়ণগঞ্জে সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইমতিয়াজসহ আরও তিন চিকিৎসকের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়েছে।
জেলা করোনাভাইরাস বিষয়ক ফোকাল পারসন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম শনিবার এ তথ্য জানান।
নতুন আক্রান্ত অন্য দুজনের একজন শহরের খানপুরে নারায়ণগঞ্জ সরকারি হাসপাতালের এবং আরেকজন শহরের বেসরকারি একটি হাসপাতালের অ্যানেসথেশিয়া চিকিৎসক।
জাহিদুল বলেন, সিভিল সার্জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ায় ঢাকা স্বাস্থ্য বিভাগের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) চৌধুরী ইকবাল বাহারকে নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জনের অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।
এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জে মোট পাঁচ চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন।
জাহিদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বলেন, খানপুর হাসপাতালের মেডিকেল কনসালটেন্ট ঢাকায় চিকিৎসাধীন।
আর সিটি লাইফ হাসপাতালের অ্যানেসথেশিয়া চিকিৎসককে শনিবার দুপুরে কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এর আগে জাহিদুল ইসলাম নিজেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। গত ৮ এপ্রিল থেকে তিনি নিজের বাসায় আইসোলেশনে আছেন।
এ ছাড়া গত ২৩ মার্চ নারায়ণগঞ্জ শহরের এক অর্থপেডিক চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তিনি ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
শহরের খানপুরে নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার সামসুদ্দোহা সঞ্জয় বলেন, তার হাসপাতালের যে মেডিকেল কনসালটেন্ট আক্রান্ত হয়েছেন, তার বয়স ৪২ বছর। আর সিটি লাইফ হাসপাতালের চিকিৎসকের বয়স ৪৫ বছর।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, নারায়ণগঞ্জ জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক নারীসহ মোট ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন সিভিল সার্জনসহ ৮৩ জন।
নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্য জেলায় যাওয়া বেশ কয়েকজনের মধ্যেও সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ কারণে নারায়ণগঞ্জকে করোনাভাইরাস বিস্তারের ‘নতুন এপিসেন্টার’ বলছে আইইডিসিআর। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুরো জেলাকে ইতোমধ্যে অবরুদ্ধ করে ফেলা হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ