নিখোঁজের ২৮ ঘণ্টা পর শিশুর বাক্সবন্দি লাশ উদ্ধার

আপডেট: মে ৭, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

গুরুদাসপুর প্রতিনিধি


নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজারপাড়া এলাকায় নিখোঁজের ২৮ ঘণ্টা পর দৃষ্টি নামে এক আড়াই বছরের শিশুর বাক্সবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার বেলা ৩টার দিকে মোহন ঘোষের পাশের বাড়ি প্রদীপের শয়ন ঘরের খাটের নিচে থেকে দৃষ্টির বাক্সবন্দী লাশ পাওয়া উদ্ধার করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পৌরসদরের চাঁচকৈড় বাজারপাড়ার মোহন ঘোষের শিশুকন্যা দৃষ্টি গত শুক্রবার বেলা ১০টার দিকে নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুজির পর মেয়েকে না পেয়ে দৃষ্টির বাবা মোহন ঘোষ গুরুদাসপুর থানায় জিডি করেন। তখন থেকেই থানা পুলিশ বিষয়টি আমলে নিয়ে ওই এলাকায় সন্দেহজনক বাড়িগুলোতে তল্লাশি চালায়। একপর্যায়ে গতকাল শনিবার বেলা ৩টার দিকে মোহন ঘোষের পাশের বাড়ি প্রদীপের শয়ন ঘরের খাটের নিচে থেকে দৃষ্টির বাক্সবন্দী লাশ পাওয়া যায়।
এ ঘটনায় প্রদীপ ঘোষ (৪০) ও তার স্ত্রী রীতারানী ঘোষ (৩০), প্রদীপের ছোট ভাই ব্রজ ঘোষ (২২) ও প্রদীপের ছেলে হৃদয়কে (১২) আটক করে পুলিশ।
জিজ্ঞাসাবাদে প্রদীপের স্ত্রী রীতারানী জানায়, ‘তার ছোট মেয়ে প্রীতির (৬) সঙ্গে খেলা করার সময় পড়ে আহত হয়ে মারা যায় দৃষ্টি। কোন কিছু না বুঝে ভয়ে লাশ বাক্সবন্দী করে তাদের ঘরেই লুকিয়ে রাখে তারা।’
এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীলিপ কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শিশুটিকে পরিকল্পিতভাবে গলাটিপে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে বাক্সবন্দী রাখা হয়েছিল।