নিজেদের দিকেই নজর অস্ট্রেলিয়ার

আপডেট: আগস্ট ২৩, ২০১৭, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রায় এক যুগ পর বাংলাদেশে টেস্ট সিরিজ খেলতে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে প্রস্তুতিটাও হয়নি তাদের ঠিকঠাক। আর্থিক ঝামেলায় বোর্ডের সঙ্গে দ্বন্দ্বে অনেক দিন ক্রিকেটে পুরোপুরি নজর দিতে পারেননি খেলোয়াড়রা। এরপর বাংলাদেশে এসে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা থাকলেও ভেন্যু জটিলতায় বাতিল হয়েছে তা। প্রস্তুতির ঘাটতি থেকেই গেছে স্টিভেন স্মিথদের। তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে প্রতিপক্ষ নয়, নিজেদের দিকেই বেশি নজর অস্ট্রেলিয়ার। মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে দলটির স্পিনার অ্যাস্টন অ্যগার জানিয়েছেন, নিজেদের দক্ষতা দিয়ে ঘায়েল করতে চান তারা বাংলাদেশকে।
বাংলাদেশে আসার আগে থেকে শোনা যাচ্ছে অ্যাগারের নাম। ডারউইনের প্রস্তুতি ম্যাচেও আলো ছড়িয়েছেন এই স্পিনার। বাংলাদেশেও দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে নিজেকে ঝালিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা বাতিল হওয়ায় হতাশা থাকলেও চিন্তিত নয় অ্যাগার, ‘হ্যাঁ, প্রস্তুতি ম্যাচ বাতিল হওয়াটা হতাশার, তবে এটা নিয়ে তো আর আমরা এখন কিছু করতে পারব না। আমি নিশ্চিত আজকের (মঙ্গলবার) অনুশীলন সেশনটা দারুণ হতে যাচ্ছে। বাইরের পরিবেশটা বেশ, হোটেল আমরা অনেকটা সময় কাটিয়ে এসেছি। তাই আমার মনে হয় দিনটা উপভোগ্য হবে আমাদের জন্য।’
অনুশীলন ম্যাচ না খেলায় বাংলাদেশের শক্তি-দুর্বলতার জায়গা নিয়ে কাজ করছে এখন অস্ট্রেলিয়া। নজরটা অবশ্য বেশি থাকছে নিজেদের ওপরই। কেন? শুনুন অ্যাগারের মুখেই, ‘বেশ কয়েকটা মিটিং হয়েছে। নিজেদের ওপরই নজর বেশি আমাদের। আমরা এখন দক্ষতা বাড়াচ্ছি, এই দক্ষতা দিয়ে কিভাবে তাদের (বাংলাদেশকে) ঘায়েল করা যায়, সেটা নিয়েই কাজ করছি এখন।’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘ওদের সব খেলোয়াড়কে আমরা বিশ্লেষণ করছি, সেগুলো নিয়ে আলোচনা হচ্ছে মিটিংয়ে। তবে নিজেদের দিকেই নজর বেশি আমাদের।’
বাংলাদেশ দলে বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের সংখ্যা বেশি। অ্যাগারের জন্য যেটা চিন্তার ব্যাপার। কারণ বাঁহাতিদের বিপক্ষে খুব একটা ভালো ইতিহাস নেই তার। যদিও আত্মবিশ্বাসীই শোনাল তার কণ্ঠ, ‘হ্যাঁ, বাঁহাতিরা স্পিনারদের খুব মারে। বিশেষকরে আমি যখন বোলিংয়ে যাই, তখন আরও বেড়ে যায়। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা বেশ মারমুখী। তাই বড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। আবার এটাও ঠিক এই আগ্রাসী ভাব উইকেট এনে দেয়। এই বিষয়টা অবশ্যই আমাদের পক্ষে কাজ করবে।’
সোমবার সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ান কোচ ড্যারেন লেম্যান জানিয়েছিলেন, মিরপুর টেস্টের একাদশে থাকছে দুই স্পিনার। যদিও ঠিক কোন দুজন, সেটা নিশ্চিত করেননি তিনি। তবে নাথান লিওন যে খেলছেন, সেটা নিশ্চিতই। বাকি থাকা জায়াগায় লড়াইটা হবে অ্যাগার ও তরুণ স্পিনার মিচেল সোয়েপসনের। একাদশে অবশ্য নিজেকেই এগিয়ে রাখছেন অ্যাগার, ‘যদি তিনি (লেম্যান) দুই স্পিনারের কথা বলে থাকেন, তাহলে ভীষণ আশাবাদী আমি থাকছি। সোয়েপসন খুব ভালো বোলার, কিন্তু মনে হয় আমার সুযোগটা বেশি।’
কন্ডিশন ও উইকেটের চারিত্রিক নিয়মে বাংলাদেশে স্পিনারদেরই রাজত্ব চলে সবসময়। ব্যতিক্রম হওয়ার কথা নয় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজেও। অ্যাগার অবশ্য পেসারদেরও সম্ভাবনা দেখছেন। তবে প্রধান ভূমিকা যে স্পিনাররাই রাখবে, তাতে কোনও সন্দেহ নেই তার, ‘আমার মতে আমাদের ফাস্ট বোলার জশ হ্যাজেলউড, প্যাট কামিন্স ও জ্যাকসন বার্ড ভালো বোলিং করতে পারবে যদি বল রিভার্স করতে পারে। তারাও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে যাচ্ছে। তবে স্পিন যে প্রধান ভূমিকা পালন করবে, তাতে কোনও সন্দেহ নেই।’-বাংলা ট্রিবিউন