নিরাপদেই পাকিস্তানে গেলেন তামিম

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নিজ দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে মরিয়া হয়েই ছিল পাকিস্তান। সবশেষ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি জয়ের পর সেই দাবিকে আরও জোরালো করে পিসিবি। অবশেষে আইসিসির সহযোগিতায় বিশ্ব একাদশের আদলে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ হতে যাচ্ছে পাকিস্তানে। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ১২ সেপ্টেম্বর শুরু হবে পাকিস্তানের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক একাদশের তিন ম্যাচের এই টি-টোয়েন্টি সিরিজ। দ্বিতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ১৩ সেপ্টেম্বর এবং শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে একই ভেন্যুতে ১৫ সেপ্টেম্বর।
এই টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে শনিবার রাতে সেখানে পৌঁছেছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। আন্তর্জাতিক একাদশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবার আগে তামিমই পৌঁছেছেন পাকিস্তানে। দলের বাকি সদস্যরা সোমবারের মধ্যে পৌঁছাবেন।
পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর জন্য আইসিসির এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানানোর পাশাপাশি এই টুর্নামেন্টে সুযোগ পেয়ে নিজেকে গর্বিত ভাবছেন তামিম, ‘বিশ্ব একাদশকে প্রতিনিধিত্ব করা বিশাল ব্যাপার। এজন্য আমি গর্বিত। আইসিসি অনুমোদিত সিরিজ বলে ম্যাচগুলো আন্তর্জাতিক মর্যাদা থাকবে। ক্রিকেট খেলুড়ে ১০টা দেশ একটা পরিবারের মতো অংশ নেবে সিরিজে। পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে কাউকে তো সহায়তা করতেই হবে। আমার মনে হয়, আইসিসি একটা চমৎকার উদ্যোগ নিয়েছে।’
২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর প্রায় সাড়ে ৮ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত রয়েছে দেশটি। এর মধ্যে আফগানিস্তান কিংবা জিম্বাবুয়ের মতো দেশগুলো সংক্ষিপ্ত সফরে পাকিস্তানে গেলেও সেখানে খেলতে আইসিসির সবুজ সঙ্কেত ছিল না। তবে এবারই প্রথম আইসিসি নিজ তত্ত্বাবধানে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর উদ্যোগ নিয়েছে।
ফাফ ডু প্লেসিসের নেতৃত্বে এরই মধ্যে ১৫ সদস্যের যে দল ঘোষণা করা হয়েছে সেই দলে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে রয়েছেন তামিম। দলটির কোচের ভুমিকায় থাকছেন জিম্বাবুয়ের কিংবদন্তি অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার।
বিশ্ব একাদশ স্কোয়াড: হাশিম আমলা, তামিম ইকবাল, ফাফ ডু প্লেসিস, জর্জ বেইলি, পল কলিংউড, বেন কাটিং, ডেভিড মিলার, গ্র্যান্ট এলিয়ট, টিম পেইন, থিসারা পেরেরা, ইমরান তাহির, ড্যারেন স্যামি, মরনে মরকেল, স্যামুয়েল বদ্রি।