রাবির ধসে যাওয়া ভবনে নির্মাণকাজে গাফিলতি ছিল, জড়িতদের প্রত্যাহার

আপডেট: এপ্রিল ১, ২০২৪, ৭:৪৭ অপরাহ্ণ


রাবি প্রতিবেদক:রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মাণাধীন শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান হল মিলনায়তনের একটি অংশ ধসে পড়ার ঘটনায় নির্মাণকাজে গাফিলতি ছিল। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে জড়িত দুই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত ২৪ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩০তম সিন্ডিকেট সভায় ভবন ধসে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটের সদস্য উপ-উপাচার্য সুলতান-উল- ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মিলনায়তনের একাংশ ধসে পড়ার ঘটনায় নির্মাণকাজে গাফিলতি পেয়েছে তদন্ত কমিটি। এর পরিপ্রেক্ষিতে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ওই প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই প্রকৌশলীকে প্রত্যাহার ও আহত শ্রমিকদের আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আহত শ্রমিকদের চিকিৎসা ব্যয় ও পর্যাপ্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

নির্মাণকাজে কী ধরনের গাফিলতি পেয়েছে তদন্ত কমিটি, এ প্রশ্নের জবাবে উপ-উপাচার্য আরও বলেন, সাটারিংয়ে ব্যবহৃত খুঁটির রড মানসম্মত ছিল না। এ ছাড়া কাঁচা বিমের ওপর ছাদ ঢালাইয়ের কাজ করায় ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ভবনের অন্যান্য অংশেও এ ধরনের কোনো কাজ করা হয়েছে কি না, সেটিও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে তদন্ত কমিটি। কিন্তু অন্যান্য অংশে কোনো গাফিলতি খুঁজে পায়নি তারা। ওই ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। এ ছাড়া ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে পরে এসব বিষয়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা ও সেই অনুযায়ী জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ায় নির্মাণাধীন ওই ভবনে কাজ শুরু হয়েছে। গত শনিবার সকাল থেকে এই কাজ চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version