নয়াদিল্লির রাজপথ কাঁপাতে ভারতের মাটি ছুঁল বাংলাদেশ সেনার জওয়ানরা

আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২১, ৮:২৮ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতের রাজপথ দাপাবে বাংলাদেশ সেনা! অবাক হচ্ছেন। হ্যাঁ এটাই সত্যি। ইতোমধ্যে ভারতের মাটি স্পর্শ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল। ২০২১ সালের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১২২ জন জওয়ান।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যদের নিয়ে ইতোমধ্যে দিল্লির পালাম বিমানবন্দরে পৌঁছে গিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনার বিশেষ উড়ান।
বায়ুসেনার সি-১৭ গ্লোবমাস্টারের ৩ টি বিমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যদের আনতে উড়ে যায়। সম্প্রতি তাঁদের দেশে ফিরে এসেছে গ্লোবমাস্টার। বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর দলটিতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বেশ কয়েকজন জওয়ান, বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর বিমানসেনা ও বাংলাদেশ নৌবাহিনীর তরফে জওয়ানরা রয়েছেন।
জানা যায়, ভারতের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো কোনও বিদেশি সামরিক বাহিনীর দলকে মধ্য দিল্লির রাজপথে জাতীয় কুচকাওয়াজে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এই আমন্ত্রণ বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।
কারণটি হলো ২০২১ সালে মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর পূর্ণ হচ্ছে। যার মাধ্যমে বাংলাদেশ অত্যাচার-নিপীড়নের কবল থেকে মুক্ত হয়ে একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। ৫০ বছর আগে যে বাহিনী একসঙ্গে লড়াই করেছে, এখন তারা গর্বের সঙ্গে রাজপথে কুচকাওয়াজে অংশ নেবে।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী স্বাধীনতা, ন্যায়বিচার ও তাদের জনগণের পক্ষে লড়াই করা সাহসী মুক্তিযোদ্ধাদের উত্তরাধিকারকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। সূত্রে খবর, কুচকাওয়াজে তাঁদের বিডি-০৮ রাইফেল প্রদর্শন করবেন বাংলাদেশের সেনা সদস্যরা।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে প্রথম বিদেশি সেনাবাহিনী হিসেবে ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে অংশগ্রহণ করেন ফরাসি সেনাবাহিনীর ১৩০ জনের ব্যাটালিয়ন। কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ।
এই বছর কোভিড অতিমারি পরিস্থিতির কারণে কুচকাওয়াজের আয়তন ও পথ, দুই-ই কমানো হয়েছে। প্রচলিত ধারায় কুচকাওয়াজে অংশগ্রহণকারী সেনাদল এবার ত্রিভূজাকৃতির বদলে বর্গাকারে বাহিনীকে সাজাবে। এর মূল কারণ, অতিমারির কারণে কম পরিমাণ সেনা সমাবেশ।
এই কারণে প্রতি বারের মতো ১৪৪ জনের পরিবর্তে বাহিনী পিছু ৯৬ জন সদস্য কুচকাওয়াজ করবেন। তুলনায় ছোটমাপের কুচকাওয়াজের রুট নির্দিষ্ট হয়েছে লাল কেল্লার বদলে ন্যাশনাল স্টেডিয়াম পর্যন্ত। দর্শক সংখ্যাও এবার অনেকটাই কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। খুব অল্প সংখ্যক দর্শক উপস্থিত থাকবেন দিল্লির রাজপথে।
তথ্যসূত্র: kolkata24x7.com

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ