পঞ্চম দিনের লকডাউন

আপডেট: জুন ১৫, ২০২১, ১১:০৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


কঠোর লকডাউনের গেলো পঞ্চম দিন। সংক্রমণ রোধে রাজশাহী নগরে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করে স্থানীয় প্রশাসন। চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। লকডাউন কার্যকরে মাঠে কঠোর অবস্থানে দেখা দেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। নগরীর গুরুত্বপূূর্ণ মোড়গুলোতে বসানো হয়েছে পুলিশের চেকপোস্ট। লকডাউন বাস্তবায়নে জরিমানাসহ শাস্তিমূলক বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
এতে নগরীর প্রধান প্রধান সড়কগুলো ফাঁকা ছিলো। তবে গত চারদিনের তুলনায় মঙ্গলবার গণপরিবহন (অটো, অটোরিক্সা) চলাচল কিছুটা বেশি ছিলো।
মঙ্গলবার (১৫ জুন) নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলো ঘুরে দেখা গেছে, প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী নগরীর সকল মার্কেট, দোকানপাট, শপিংমল বন্ধ। নির্দেশনার আওতার মধ্যে থাকা কেউ দোকান খোলার চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। নগরীর সাহেববাজার, নিউমার্কেট, কোর্টবাজার এলাকায় কাঁচাবাজার সকালের দিকে খোলা থাকলেও অন্যান্য দিনের চেয়ে বাজারে জনসমাগম বেশি ছিলো।
কাঁচামাল ব্যবসায়ী আলম জানান, আমরা বাজারে সকালের দিকে আসলেও দুপুর দুইটার মধ্যে বন্ধ করে চলে যেতে হচ্ছে। ক্রেতারা অনেক কষ্টে করেই বাজার করে বাসায় ফিরছে। গেলো ৪দিন ক্রেতাদেরও অনেক বিপাকে পড়তে হয়েছে।
কোটবাজার মুদিদোকানি আকরাম জানান, সকালের দিকে ব্যবসা কোনোভাবে করছি। ক্রেতা খুব বেশি আসছেনা। তবে পারাঘরে দোকান করে এমন ব্যবসায়ীরা আসছে জিনিস নিতে। কিন্তু বেলা বাড়ার আগেই কেনা-কাটা করে চলে যাচ্ছেন। ১টায় আসলে তাদের ফেরত যেতে হচ্ছে।
অন্যদিকে পথচারী সামিমা জানান, কোর্টবাজার থেকে বাংলাদেশ বেতার প্রায় ১মাইল আসতে হচ্ছে প্রতিদিন। সন্ধ্যার সময় কোনো গাড়ি পাচ্ছিনা। তারপর পেটের দায়ে কাজে এভাবেই হেঁটে আসছি। আমাদের জনসাধারণের যত রকম কষ্ট।
নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান- লকডাউন কার্যকরে কঠোর অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। নগরীর গুরুত্বপূূর্ণ মোড়গুলোতে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। বিনাকারণে বাইরে আসা মানুষগুলোকে বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ