পত্নীতলায় বিক্রি বেড়েছে সরিষার তেল

আপডেট: মে ১০, ২০২২, ১০:৫৩ অপরাহ্ণ

পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:


নওগাঁর পত্নীতলায় সয়াবিন তেলের দাম বাড়ার পর থেকে চাহিদা বেড়েছে সরিষার তেলের। উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে জানা যায়, এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি মূল্য স্থানভেদে ২০০-২২০ টাকা। এছাড়া খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৯০-২০০ টাকা। ৫ লিটার বোতলজাত সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ৯৭৫-১১০০ টাকা।

উপজেলার পদ্মপুকুর গ্রামের ক্রেতা বিদ্যুৎ হোসেন জানান, দিন-দিন সয়াবিন তেলের দাম যে হারে বাড়ছে, তাতে আমরা নি¤œবিত্তের মানুষ চোখে সরষের ফুল দেখছি। যে তেল ৬ মাস আগেও কিনেছি ১২০ টাকা লিটার। তা এখন ২২০ টাকা। এখন থেকে সয়াবিনের পরিবর্তে সরিষা চাষ করে তেল খেতে হবে। অন্যথায় আমাদের মতো মানুষের বিনা তেলে রান্না করতে হবে।

নজিপুর পৌর সদরের পল্লী চিকিৎসক ময়েন উদ্দিন বলেন, সয়াবিন আর সরিষার তেলের দাম এখন প্রায় কাছাকাছি। সয়াবিন তেলের তুলনায় সরিষার তেল স্বাস্থ্য সম্মত।

তাই আগের চেয়ে এখন সরিষার তেল বেশি পরিমাণে কিনছি। ভাবছি, এখন থেকে সয়াবিন কেনাই বাদ দিব। উপজেলার হরিপুর গ্রামের মাস্টার শহিদুল্লাহ (৮০) বলেন, আজ থেকে ৫০/৬০ বছর আগেও গ্রামের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ সরিষা চাষ করতো কিংবা যারা চাষ করতো না তারা কলুর কাছ থেকে সরিষার তেল কিনে খেতো।

এখন সরিষার চাষ লাটে উঠেছে। বিধায়, আমাদেরকে তেল সঙ্কটে পড়তে হচ্ছে। নজিপুর পৌর সদরের বিউটি বেগম নামে আরেক ক্রেতা বলেন, রান্নার কাজে সয়াবিনের তেলের তুলনায় সরিষার তেল কম লাগে। আমি আগে থেকেই সরিষার তেল ব্যবহার করি। নজিপুর বাসস্ট্যান্ডের হোটেল ব্যবসায়ী মামুনুর রশিদ বলেন, তেল কিনতে হচ্ছে বেশি দামে।

ফলে খাবারের দামও একটু বেড়েছে। নজিপুর সদরের আনোয়ারা চিকিৎসালয়ের জনস্বাস্থ্যবিদ ডা: এম.এ গফুর বলেন, সয়াবিন তেলের তুলনায় সরিষার তেল স্বাস্থ্যসম্মত ও পুষ্টিসমৃদ্ধ। তবে বোতলজাত সরিষার তেল ব্যবহার না করে ঘানি/মেশিনে ভাঙা তেল সংগ্রহ করতে হবে। আমি নিজেও সারা বছর সরিষার তেল ব্যবহার করি এবং আমার নিকট চিকিৎসাসেবা নিতে আসা রোগিদেরও সরিষার তেল ব্যবহারের পরামর্শ দিয়ে আসছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ