পদ্মাবাঁধের পাশে ঝুঁকিপূর্ণ বাড়ি

আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০১৬, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



নগরীতে পদ্মা নদীর পানি নেমে যাওয়ার পর শহর রক্ষা বাঁধের বিভিন্ন স্থান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এরপর তলিয়ে গেছে বাঁধের ব্লকও। ইতোমধ্যে সরু হয়েছে গেছে শহর রক্ষা বাঁধের বিভিন্ন স্থান। এতে ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে বাঁধ সংলগ্ন স্থাপিত বাড়িঘরগুলো। বাঁধের মাটি নদীতে তলিয়ে যাওয়ায় যেকোনে মুহূর্তে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে কাঁচাপাকা বাড়িঘরগুলো। এমন অবস্থায় বাঁধ পুনঃসংস্কারের জন্য রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের নিকট দ্রুত প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন বাঁধের আশেপাশে নির্মিত বসবাসরত বাড়ির মালিকরা।
ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতিতে আছেন, নগরীর আলুপট্টি ঘোষপাড়া এলাকা নদীর বাঁধ সংলগ্ন অধিবাসীরা।  পদ্মায় পানি শুকিয়ে যাওয়ার পর বাঁধের মাটি ও ব্লক ওঠে গেছে। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ ও বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে অশোক ঘোষের নির্মিত দুইতলা বাড়িটি। বাড়িটি প্রায় ৪ কাটার জমির ওপর প্রায় ১৫ বছর আগে নির্মাণ করা হয়। প্রথমে টিনের ঘর থাকলেও পরে ধীরে ধীরে দুই তলা বাড়ি নির্মাণ করেন অশোক ঘোষ ও তার ভাইয়েরা মিলে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগি বাড়ির মালিকরা অতিদ্রুত পদ্মার পাড়ের বাঁধে মাটি দিয়ে সংস্করণ করে বাঁধ সংলগ্ন বাড়িগুলোকে দুর্ঘটনার কবল থেকে রক্ষা করার দাবি জানান। এর মধ্যে বিশেষ করে অশোক ঘোষের বাড়িসহ আশেপাশে বাড়িগুলো বিপজ্জনক অবস্থায় আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ