পবা ইউপি নির্বাচন: নৌকার হাল ধরা তারুণ্যেকে নিয়ে আশাবাদী সমর্থকরা

আপডেট: অক্টোবর ২৮, ২০২১, ৮:৫৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


সময়ের সঙ্গে দেশের রাজনৈতিক নেতৃত্বে তারুণ্যের অংশ গ্রহণ বাড়ছে। রাজনৈতিক অঙ্গনে শিক্ষিত তারুণ্যকে অগ্রাধীকার দিচ্ছেন সংস্কারমনা রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। এরই ধারাবাহিকতায় প্রত্যন্ত এলাকার নেতৃত্বেও আসছে উচ্চ শিক্ষিত তরুণ। যেটাকে দল ও দেশের জন্য ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন ইউনিয়ন ও উপজেলার আওয়ামী লীগ।

পবা উপজেলার ইউপি নির্বাচনে বড়গাছির জন্য নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যানেজমেন্টে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করা যুবক শাহাদাত হোসাইন (২৫)। মাদক, সন্ত্রাস, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে, সরকারি ও নাগরিক সুযোগ-সুবিধা প্রান্তিক জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, ধর্মীয় উপাসনালয়ের উন্নয়ন, আধুনিক ইউনিয়ন বিনির্মাণ, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায়, বৈষম্য মুক্ত ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা ও জনপ্রতিনিধিদের প্রতি আস্থা ফিরিয়ে আনতে প্রধানমন্ত্রী তাকে চেয়ারম্যান হিসেবে বেঁছে নেয়ায় খুশি শাহাদাত হোসাইন।

আসন্ন ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ২৮ নভেম্বর। গত ১৪ অক্টোবর ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার তারিখ ২ নভেম্বর। মনোনয়ন বাছাই ৪ নভেম্বর ও প্রত্যাহারের সময় ১১ নভেম্বর। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে পবা উপজেলার দর্শণপাড়া ইউপিতে কামরুল হাসান, হুজুরীপাড়ায় গোলাম মোস্তফা, হড়গ্রামে ফারুক হোসেন, হরিপুরে বজলে রেজবি আল হাসান, দামকুড়ায় রফিকুল ইসলাম, পারিলায় একমাত্র নারী প্রার্থী ফাহিমা বেগম ও বড়গাছিতে একমাত্র উচ্চ শিক্ষিত তরুণ নেতা শাহাদৎ হোসাইনকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

দলের ত্যাগী, পরিশ্রমী ও উদ্যোমী এমন তরুণকে নৌকার হাল ধরতে বেঁছে নেওয়ায় খুশি আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীরাও। শাহাদৎ হোসাইন জানান, তিনি শিক্ষা জীবন থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে এসেছেন। ২০১৩ সাল হতে বড়গাছি ইউনিয়নের ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে নিবেদিত আছেন। সেই সময় থেকে আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করছেন।

তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে তিনি কাজ করছেন। আসন্ন নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি বরগাছি ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়ণসহ কর্মসংস্থানে কাজ করবেন।

বরগাছি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর গাফফার, সাধারণ সম্পাদক আজাহার তালুকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, বরাগাছি ইউপিতে বিগত বছরে তেমন কোন উন্নয়ন হয় নি। বিএনপি নেতা বর্তমান চেয়ারম্যান বিভিন্ন অজুহাতে কাজ না করে নিজের স্বার্থ হাসিল করেছেন। কিন্তু এই অবস্থা চলতে পারে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই ইউপিতে নৌকার হাল ধরতে এবার শিক্ষিত যুবক শাহাদৎ হোসেনকে বেঁছে নিয়েছেন। যেটা যুগপোযোগী সিদ্ধান্ত। আমরা প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে শাহাদৎকে বিজয়ী করতে কাঁধে কাধ মিলিয়ে কাজ করবো। ইউনিয়নের ওয়ার্ড পর্যায়ের সকল নেতারাও শাহাদৎকে বিজয়ী করতে কাজ করার কথা জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ