পরকীয়ার জন্য ইন্দোনেশিয়ার নারীকে ১০০ এবং পুরুষকে ১৫ বেত্রাঘাত

আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০২২, ৭:২২ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


ইন্দোনেশিয়ায় পরকীয়ার অপরাধে এক নারীকে প্রকাশ্যে ১০০ এবং পুরুষকে ১৫ বার বেত্রাঘাতের শাস্তি দেওয়া হয়েছে। দেশটির রক্ষণশীল আচেহ প্রদেশে শাস্তি প্রদান করা হয়।

দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে জানা গেছে, পূর্ব আচেহ প্রদেশের পাবলিক প্রসিকিউটর দফতরের তদন্ত বিভাগরে প্রধান ইভান নাজ্জার আলভি। তিনি বলেন, এই ঘটনায় তদন্তকারীদের কাছে ওই নারী বিয়ে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। এতে আদালত তাকে নিয়ম মোতাবেক কঠোর শাস্তির আদেশ দেন।

তবে ওই পুরুষকে দোষী সাব্যস্ত করা কঠিন ছিল বলে জানান তিনি। কারণ তিনি ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের মৎস্য সংস্থার প্রধান ছিলেন। তার স্ত্রীও রয়েছেন। নিজের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বেত্রঘাতের পর আলাভি বলেন, বিচার চলার সময় ওই লোক কিছুই স্বীকার করেননি। ফলে বিচারককরা তাকে দোষী প্রমাণ করতে সমস্যায় পড়েন। তবে ২০১৮ সালে ওই বিবাহিত পুরুষকে পাম বাগানে এক অবিবাহিত নারীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ধরা পড়েন। এই রায়ে তাকে ৩০ বার বেত্রাঘাতের শাস্তি ঘোষণা হলেও আবেদন করলে তা মওকুফ করে ১৫ বার করেন বিচারক।
মদ, জুয়া, ব্যাভিচার, সমকামীতার মতো অপরাধের শাস্তির চাবুক মারার বিধান রয়েছে আচেহ প্রদেশে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন