পরিচ্ছন্নতাকর্মীর মহত্ত্ব

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



চিনের শেনইয়াং শহরের বাসিন্দা ঝাও ইয়ংজু। ৫৬ বছর বয়সি ঝাও একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। সম্প্রতি তার মহত্ত্বের কথা ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের হৃদয় ছুঁয়েছে।
ঝাও গত ত্রিশ বছর ধরে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার জন্য তার বেতনের একটি বড় অংশ দান করে আসছেন। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ফান্ড গঠনের জন্য তিনি দুই শিফটে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর কাজ করেন। প্রতিদিন ভোর সাড়ে চারটায় বাসা থেকে বের হন এবং ফেরেন রাত নয়টায়। এ জন্য পারিশ্রমিক হিসেবে মাসে ২ হাজার ৪০০ ইউয়ান বা ৩৫০ মার্কিন ডলার পান। এই অর্থ দিয়ে স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপন কঠিন হলেও এর মধ্যে থেকেই তিনি একটি বড় অংশ দান করেন সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষাগ্রহণের কাজে। গত ত্রিশ বছর ধরে তিনি এটি করে আসছেন এবং ভবিষ্যতেও এটি চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে রয়েছে। ঝাওয়ের হিসেব মতে, এ পর্যন্ত তিনি ১ লাখ ৭০ হাজার ইউয়ান (প্রায় ২০ লাখ টাকা) দান করেছেন এবং ৩৭জন সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে স্কুলে পাঠিয়েছেন।
শিশুদের সাহায্যের জন্য ঝাও এক সময় তার বাড়ি বিক্রি করে দিয়ে ভাড়া বাড়িতে থাকা শুরু করেন। বাসা ভাড়া বাবদ তিনি ৬০০ ইউয়ান দেন এবং অন্যান্য খরচের পর বেশির ভাগ অর্থই দান করে দেন।
৫৬ বছর বয়সি এ পরিচ্ছন্নতাকর্মী চিনের একটি দৈনিক পত্রিকাকে জানিয়েছেন, ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকেই তার এই মহৎ গুণটি এসেছে। ১৯৭৬ সালে বাবা মারা যাওয়ার পর তিনি ও তার মা খুব কষ্ট করেছেন। ঠিক মতো খাবার যোগাড় হতো না। কিন্তু সেই সময় প্রতিবেশীরা তাদের অনেক সাহায্য করেন। ওই সময় ঝাও মনস্থির করেছিলেন, নিজের জীবন তিনি অন্যের সাহায্যের জন্য উৎসর্গ করবেন।
ঝাওকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর চিনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তা বেশ সাড়া ফেলেছে। সবাই তার এই মহৎ কাজকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অনেকেই তাকে বাস্তব জীবনের হিরো সম্বোধন করেছেন। রাইজিংবিডি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ