পর্দা নামলো প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ।। চয়নের ‘গন্তব্যহীন’ শেষ্ঠ চলচ্চিত্র

আপডেট: মার্চ ২২, ২০১৭, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


লালন শাহ মঞ্চে পাঁচ দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, নগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার ও নাট্যমঞ্চ আন্দোলন, রাজশাহীর আহ্বায়ক কামারুল্লাহ সরকার কামা-                                                    সোনার দেশ

পর্দা নামলো রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটি আয়োজিত পাঁচ দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সহযোগিতায় গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিসি মিলনায়তনে এ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়।
সমাপনী অনুষ্ঠানে উৎসবে অফিসিয়াল মনোনয়ন প্রাপ্ত চলচ্চিত্রের মধ্যে চারটি চলচ্চিত্রকে চারটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হয়। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে শাহারিয়ার চয়নের ‘গন্তব্যহীন’, শ্রেষ্ঠ পরিচালক ক্যাটাগরিতে ‘অগন্তকের লাল গোলাপ’র পরিচালক মির গালিব ও ইস্তিয়াক, শ্রেষ্ঠ সিনেমেট্রোগ্রাফার ক্যাটাগরিতে শাহারিয়ার চয়ন (ঘুড়ি) এবং জুড়ি বোর্ডর বিশেষ বিবেচনায় ‘দ্যা রোড নট টেকেন’কে পুরস্কার প্রদান করা হয়।
এছাড়াও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হকের জীবনী নিয়ে নির্মিত আহসান কবীর লিটনের প্রমাণ্য চলচ্চিত্র ‘গল্পলোকের চিত্রকর’ প্রদর্শিত হয়।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক বলেন, ‘চলচ্চিত্রের যে কয়টি শাখা আছে তার মধ্যে সিনেমা সব থেকে উচ্চ। সিনেমার মাধ্যমে একটি প্রেক্ষাপটের সবটুকু উঠে আসে। তবে এখন ফটোগ্রাফিও একটি শিল্প হয়ে উঠেছে। কারণ একটি ফটোর মাধ্যমে এখন অনেক কিছু তুলে ধরা যায়।’
রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি আহসান কবীর লিটনের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ’র সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মামুন, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও চলচ্চিত্র শিক্ষক রাজীবুল হোসেন, রাজশাহীর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ও চল্িচ্চত্র নির্মাতা ড. সাজ্জাদ বকুল প্রমূখ।
সমাপনী অনুষ্ঠানে উৎসবে অফিসিয়াল মনোনয়ন প্রাপ্ত ২৪টি চলচ্চিত্রের মধ্যে থেকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চারটি ক্যাটাগরিতে চারটি চলচ্চিত্রকে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে শাহারিয়ার চয়নের ‘গন্তব্যহীন’, শ্রেষ্ঠ পরিচালক ক্যাটাগরিতে ‘অগন্তকের লাল গোলাপ’র পরিচালক মির গালিব ও ইস্তিয়াক, শ্রেষ্ঠ সিনেমেট্রোগ্রাফার ক্যাটাগরিতে শাহারিয়ার চয়ন (ঘুড়ি) এবং জুড়ি বোর্ডর বিশেষ বিবেচনায় ‘দ্যা রোড নট টেকেন’ কে পুরস্কার প্রদান করা হয়। পুরস্কার প্রাপ্তদের হাতে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকসহ অতিথিরা পুরস্কার হিসেবে সম্মাননা স্বারক তুলে দেন। এছাড়াও সমাপনী অনুষ্ঠানে উৎসবে অফিসিয়াল মনোনয়ন প্রাপ্ত ২৪টি চলচ্চিত্রের নির্মাতাদের হাতে সম্মাননা স্বারক তুলে দেয়া হয়।
এদিকে ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ’র সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মামুন শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘গন্তব্যহীন’র নির্মাতা শাহারিয়ার চয়নকে পুরস্কার হিসেবে পাঁচ হাজার টাকা প্রদান করেন। এছাড়াও চারটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রাপ্ত চলচ্চিত্র মুভিয়ানা চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শন করা হবে বলেও ঘোষনা দেন ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ’র সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মামুন।
প্রসঙ্গত, বৃষ্টির কারণে সোমবার প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের নগরীর দুটি ভেন্যুতে (বড়কুঠি মুক্তমঞ্চ ও লালন শাহ মুক্তমঞ্চ) চলচ্চিত্র প্রদশিত হয় নি। আজ বুধবার সন্ধ্যয় এ দুটি ভেন্যুতে সোমবারের চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শিত হবে বলে রাজশাহী রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।