‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

আপডেট: অক্টোবর ২৮, ২০২১, ৩:৩৬ অপরাহ্ণ

আগ্রার তিন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

সোনার দেশ ডেস্ক


টি২০ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করা তিন কাশ্মিরি শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। উত্তর প্রদেশের আগ্রা থেকে বুধবার তাদের আটক করা হয়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কার্যালয়ের এক টুইট বার্তায় বৃহস্পতিবার সকালে বলা হয়েছে, যারা পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করেছে তারা রাষ্ট্রদ্রোহিতায় অভিযুক্ত হবে।
আটক তিন জনই আগ্রার রাজা বলবন্ত সিং কলেজের প্রকৌশল বিদ্যার শিক্ষার্থী। আরশিদ ইউসুফ এবং ইনায়াত আলতাফ শেখ কলেজের তৃতীয় বর্ষের এবং শওকত আহমেদ গানাই চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

তাদের বিরুদ্ধে ধর্মের ভিত্তিতে মাঠ পর্যায়ে শত্রæতায় উস্কানি দেওয়া এবং সাইবার সন্ত্রাসের অভিযোগ আনা হয়েছে। এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হতে পারে বলে মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের টুইট বার্তায় ইঙ্গিত মিলেছে।
গত সোমবার ওই শিক্ষার্থীদের কলেজ থেকেই বহিষ্কার করা হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ‘পাকিস্তানের পক্ষে স্টাটাস পোস্ট করে শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাÐে যুক্ত থাকার’ প্রমাণ মিলেছে।

একই ধরণের অভিযোগে উত্তর প্রদেশে আরও চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনজনকে বারেইলি থেকে আর অপর একজনকে লখনৌ থেকে আটক করা হয়েছে।
আগ্রার পুলিশ সুপার বিকাশ কুমার বলেন, ‘ম্যাচের পরই বিষয়টি সামনে আসে, দেশবিরোধী মন্তব্য করা হয়েছে। আমরা অভিযোগ পেয়েছি আর একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্তের পর তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।’

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, কলেজ থেকে পাকিস্তানের পক্ষে  স্লোগান শুনে সেখানে পৌঁছান বিজেপির যুব শাখা ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার নেতা গৌরব রাজাওয়াতের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন অ্যাক্টিভিস্ট। তারা পাকিস্তানবিরোধী স্লোগান দিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ আনে। বিজেপি যুব মোর্চার নেতাদের দায়ের করা মামলার ভিত্তিতেই কাশ্মিরি শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার করা হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন