পাকিস্তানের হক্সবে সৈকতে পানিতে ডুবে ১২ জনের মৃত্যু

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭, ১:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পাকিস্তানের বন্দর শহর করাচির হক্সবে সৈকতে পানিতে ডুবে দুটি পরিবারের অন্তত ১২ জন মারা গেছেন।
শনিবার সন্ধ্যায় সাগরে গোসল করতে নেমে ঢেউয়ের তোড়ে তারা ভেসে যান বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা, খবর ডন ডটকমের।
ওই পরিবারগুলো জনপ্রিয় হক্সবে সৈকতে পিকনিক করতে গিয়েছিল। বর্ষাকালে সাগর উত্তাল থাকায় সেখানে গোসল করায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে তারা সাগরে গোসল করতে নামলে এ ঘটনা ঘটে।
করাচি-দক্ষিণের ডিআইজি আজাদ খান ডন ডটকমকে জানান, একটি শিশু সৈকতের টার্টল বিচের কাছে একটি ঘূর্ণিস্রোতে আটকা পড়ে যায়, তাকে বাঁচাতে বাকীরা এগিয়ে গেলে সবাই ডুবে যায়।
মৃতদের মধ্যে এক ব্যক্তি, তার কিশোর বয়সী ছেলে ও মেয়ে এবং দুই ভাই রয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।
ওই পরিবারগুলোর সদস্যদের সাগরে গোসল করতে ‘বহুবার’ বাধা দেওয়ার পর তারা বাড়িতে ফেরার জন্য গাড়িতে উঠতে শুরু করেছিল, কিন্তু এরমধ্যেই ওই শিশুটি ঘূর্ণিস্রোতে পড়ে গেলে পুরো পরিস্থিতি পাল্টে যায় বলে জানিয়েছেন ডিআইজি আজাদ।
পিকনিকে আসা পরিবারগুলো করাচির নাজিমাবাদ এলাকার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে পুলিশ।
সাগরে নামার ক্ষেত্রে জারি করা নিষেধাজ্ঞার আদেশ পালিত না হওয়ায় সৈকতটির পুলিশ পোস্টের উপপরিদর্শককে বরখাস্ত করা হয়েছে।
ঈদি ফাউন্ডেশনের মুখপাত্র সাদ ঈদি জানিয়েছেন, সাগর থেকে ১২টি লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
গত মাসে করাচির সৈকতগুলোতে ডুবে যাওয়া অন্তত ৩৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ