পাকিস্তানের হয়ে মাঠে নামলেন ইয়ান চ্যাপেল-ভিভ রিচার্ডস

আপডেট: জুন ২৪, ২০১৭, ১:১৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতকে হারিয়ে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জয়ের পরই অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) অনেক দিন ধরেই চেষ্টা করছে। প্রতিপক্ষ দলগুলোকে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার জন্য অনুনয়-বিনয়ও করছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। তবে এবার কাজ হলেও হতে পারে। পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে পাকিস্তানিদের হয়ে এবার যে মাঠে নামলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেল এবং ক্যারিবিয় কিংবদন্তি স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসও। দুজনেই কায়মনো বাক্য চাইছেন পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরুক। দুজনেই অভিন্ন সুরে বলেছেন, এখন অবশ্যই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানো উচিত।
না, দুই দেশের দুই কিংবদন্ত এক সঙ্গে বসে এই আহ্বান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ না পাওয়ায় পাকিস্তানি সমর্থক ও ক্রিকেটারদের কষ্টটা তারা উপলব্ধি করছেন নিজে থেকেই। দুজনেই ভিন্ন ভিন্ন উপলক্ষ্যে নিজেদের অন্তরের সেই চাওয়াটা ব্যক্ত করেছেন। বেসরকারি এক নিউজ চ্যানেলে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার চ্যাপেল বলেছেন, দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না হওয়াটা পাকিস্তানের ক্রিকেট উন্নয়নের পথে অনেক বড় এক বাধা। পাকিস্তানি সমর্থকরাও বঞ্চিত হচ্ছে নিজেদের ঘরের মাঠে বসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা দেখা থেকে।
দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর উপায় হিসেবে পিসিবিকে কিছু পরামর্শও দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত চ্যাপেল ভাইদের বড়জন। বলেছেন, দেশে পুনরায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরিয়ে আনতে হলে পিসিবিকে ছোট ছোট পদক্ষেপ নিয়ে এগোতে হবে, ‘প্রথমেই ৫ টেস্টের সিরিজ বা ও রকম কিছু নিয়ে ভাবলে হবে না। বিশ্বের অন্য ক্রিকেট দলগুলোকে পাকিস্তানে ক্রিকেট খেলতে আগ্রহী করে তুলতে হলে ছোট ছোট পদক্ষেপে এগোতে হবে। তার পর অনায়াসেই বড় পদক্ষেপ নেওয়া যাবে।’
ক্যারিবীয় কিংবদন্তি স্যার ভিভ রিচার্ডস এরই মধ্যে পাকিস্তানের ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন। এ বছর পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) কুয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের কোচ ছিলেন ভিভ রিচার্ডস। তার দল কুয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স উঠেছিল ফাইনালেও। দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর আশায় এবারের পিএসএলের সেই ফাইনাল পিসিবি আয়োজন করে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে। ফলে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যদিয়ে আয়োজিত সেই ফাইনালে ভিভ রিচার্ডসও ছিলেন।
তিনি তাই ভালো করেই প্রত্যক্ষ করেছেন, ক্রিকেটের প্রতি পাকিস্তানি সমর্থকদের উত্তেজনা। পাকিস্তানি সমর্থকদের উষ্ণ অভ্যর্থনার কথা এখানো ভুলতে পারেননি ক্যারিবীয় কিংবদন্তি। সেই অভিজ্ঞতা থেকেই বলছেন, ‘আমরা পিএসএলের ফাইনাল উপলক্ষ্যে এখানে এসেছিলাম (লাহোরে, এ বছরের মার্চে)। পাকিস্তানি সমর্থকদের কাছ থেকে উষ্ণ অভ্যর্থনাই পেয়েছি। এবং দেখেছি, এখনকার মানুষ ঘরের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা দেখার জন্য কতটা উদগ্রীব। আমাদের অবশ্যই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পুনরুদ্ধারের উপায় বের করতে হবে। আমরা যদি নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে পুরো বিশ্বের নিরাপত্তার দিকে তাকাই, আসলে আমরা কোথাও নিরাপদ নই।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ