পাকিস্তানে আফগান তালিবানের পতাকা! তালিবানি পাকিস্তানের আলামত?

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১, ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

পাকিস্তানে তালিবানের জন্ম। কাবুল দখলের পর তালিবান মুখপাত্র সেটা অহংকারের সাথেই বলেছিলেন, পাকিস্তান তাদের জতুগৃহ। স্বাভাবিকভাবেই মাতৃজঠরের দায় অস্বীকার করার সুযোগ থাকে না। আশংকাটা কাবুল দখলের প্রথম থেকেই ছিল তালিবান আফগানিস্তানে স্থিতিশীল অবস্থায় আসলেই পাকিস্তানের রাজনৈতিক দখলে মনোনিবেশ করতে পারে। সেটাই বাস্তবে পরিণত হওয়ার আলামত লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তী সরকার নিয়ে ডামাডোল তুঙ্গে, তখন প্রতিবেশী পাকিস্তানের মাদ্রাসায় উড়ল আফগান তালিবানের পতাকা। রোববার ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানী ইসলামাবাদে। পাকিস্তানের পুলিশ মাদ্রাসার প্রধান মাওলানা আব্দুল আজিজকে গ্রেফতার করেছে। এর আগেও মাওলানা আজিজের বিরুদ্ধে তালিবানি পতাকা তোলার অভিযোগ আছে। ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, মাদ্রাসা জামিয়া হাফসা-য় আফগান তালিবানের পতাকা ওড়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। পুলিশ ঢোকায় পরিস্থিতি মুহূর্তে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অভিযোগ, পতাকা নামাতে বললে অস্ত্র উঁচিয়ে পুলিশকে হুঁশিয়ারি দেন ওই মাদ্রাসার মাওলানা। পুলিশকে ঘিরে ধরা হয় বলেও পাকিস্তানের সংবাদপত্র ‘ডন’-কে উদ্ধৃত করে জানিয়েছেন সংবাদসংস্থা পিটিআই। অভিযোগ, পুলিশ অভিযানে গেলে তাদের ঘিরে ধরে তালিবানপন্থী স্লোগান দিতে থাকেন মাদ্রাসার লোকজন। পতাকা নামাতে বললে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাবে বলেও পুলিশকে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। আগস্ট থেকে এই নিয়ে তৃতীয়বার পাকিস্তানি মাদ্রাসায় তালিবানি পতাকা ওড়ার ঘটনা ঘটলো বলে জানা গিয়েছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আফগানিস্তানে তালিবানি শাসন নিয়ে বেশ কৌতুহলি এবং উচ্ছ্বসিত। আফগান তালিবানের জয়কে তার নিজের জয় হিসেবে দেখছেন। তালেবানে তিনি এতই মগ্ন-বিভোর যে, তালেবান সরকারের পক্ষে আন্তর্জাতিকভাবে ক্যাম্পেইনে স্বয়ং মাঠে নেমেছেন। শুধু তাই নয়, ইমরান খান এতোই উচ্ছ্বসিত যে, দেশটির দীর্ঘ সময়ের বন্ধু আমেরিকাকে পর্যন্ত দূরে ঠেলে দিয়েছে। তিনি ক্রিকেট খেলাটি খুবই ভাল বুঝেছিলেন- কিন্তু রাজনৈতিক ম্যারপ্যাচ অনেক জটিল ও কুটিল পথ সেটা তার জানার কথা নয়। তিনি যতদিন রাজনীতি করছেন তাতে তাকে রাজনীতিক নাম দেয়া শোভন হবে না। তার যে ভবিষ্যতমুখিনতা নেই সেটা বেশ বুঝা যায়। নিজের ঘর সামলানোটাই যখন অতি জরুরি কাজ- আফগানিস্তানের তালিবানের প্রতি অতি কৌতুহল পাকিস্তান দখলে তালিবানের পথ আরো সহজ হয়ে যায়। তারই আলামত পাকিস্তানে লক্ষ্য করা যায়। তালিবানি পতাকা উত্তোলনের জন্য যে মাওলানাকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাতে তার মনোবল এতোটুকু দমিত হবে না। কেননা পাকিস্তানে অমন মাওলানার সংখ্যা নেহাতই কম নয়। বরং বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে গেলে ইমরান সরকারকেই বিপদে পড়তে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ