পাকিস্তানে গুলি–বোমায় হত ৬২

আপডেট: জুন ২৫, ২০১৭, ১:১০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ঈদের আগে নাশকতা পাকিস্তানের ৩টি শহরে। জুম্মাবারে ঈদের বাজারে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটাল জঙ্গিরা। সিয়া অধ্যুষিত এলাকায় একটি গাড়ির মধ্যে বিস্ফোরক বোঝাই করে রাখা হয়েছিল। একই ধরনের বিস্ফোরণ ঘটে আরও ২টি শহরে। বিস্ফোরণে প্রায় ৬২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আহত শতাধিক।
প্রথম বিস্ফোরণটি ঘটে বালুচিস্তানের কোয়েট্টায়। সেখানকার ইন্সপেক্টর জেনারেল এহেসান মেহবুব জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় প্রায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে সাতজন পুলিশকর্মী। আহত হয়েছেন ২১ জন। বিস্ফোরণের দায় নিয়েছে আইএস সমর্থিত জামাত–উল–আহরার।
বিস্ফোরণের এক ঘণ্টা পরেই শহরের তুরি মার্কেটে ইদের বাজারে দ্বিতীয় বিস্ফোরণটি ঘটে। শিয়া অধ্যুষিত এলাকায় মূলত খুররম আদিবাসীদের বাস। সেখানে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়। আহত হয়েছেন ৭০ জন। তাঁদের মধ্যে অধিকাংশই শিয়া বলে জানিয়েছে সেখানকার পুলিশ আধিকারিকরা। যদিও জেলা সদর হাসপাতালের সুপারের দাবি ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ২৫ জনের। আহত শতাধিক। সুন্নি জঙ্গি সংগঠন বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে।
ঘটনার দিন বিকেলেই করাচিতে রাস্তার ধারের এক রেস্তোরাঁয় মোটরলাইকেলে চেপে দুই যুবক বেপরোয়া গুলি চালায়। সেখানেই ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আততায়ীরা হেলমেট পরে থাকায় তাঁদের চেনা যায়নি।  মৃতদের তালিকায় অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর আসিফ আহমেদ রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।
সন্ত্রাস বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়েছেন উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা। পেশোয়ার থেকে টহলদারী হেলিকপ্টার পাঠানো হয়েছে। এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ঈদের আগে যাতে আর এধরনের নাশকতা না ঘটে সেজন্য সেনাবাহিনী এবং পুলিশ আধিকারিকদের কড়া নজরদারির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
তথ্যসূত্র: আজকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ