পাবনায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণ চেষ্টার অভিযোগে আটক ৪

আপডেট: আগস্ট ৩১, ২০২২, ১১:২০ অপরাহ্ণ

পাবনা প্রতিনিধি:


পাবনা সদর উপজেলার দুবলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বাবলী খাতুন (১২) কে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার পথে চারজন কে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (৩১ আগস্ট) সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থ্য অবস্থায় ও-ই শিক্ষার্থীকে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
শিক্ষার্থী বাবলী উপজেলার ফারাতপুর গ্রামের বারেক ফকিরের মেয়ে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, স্থানীয় শ্রমিকলীগ নেতা খুদু খার ছেলে সম্রাট খা স্কুলের পিছন থেকে তার অপর ৩/৪ জন বন্ধু মিলে অস্ত্রের (চাকু) ভয় দেখিয়ে ছাত্রী বাবলীকে অপহরণ করে নিয়ে যাচ্ছিল।

এ সময় শিক্ষার্থীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে অপহরণকারীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে একজন এবং পরে ৩ জনকে আটক করে দুবলিয়া ক্যাম্পের পুলিশের কাছে সোপর্দ করে । শিক্ষার্থীকে অজ্ঞান অবস্থায় সুজানগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় আটককৃতরা হলো সদর উপজেলার টাটিপাড়া গ্রামের খুদু খাঁর ছেলে সম্রাট খা (১৮), একই গ্রামের লিয়াকত সরদারের ছেলে সম্রাট-২ (১৮), ভাউডাঙ্গা গ্রােেম মৃত জব্বার প্রামানিকের ছেলে রেজাউল প্রামানিক (৪০) ও তারাবাড়িয়া গ্রামের মনছুর আলী (৩৫)।
দুবলিয়া ক্যাম্পের পুলিশ ইনচার্জ এসআই আবুল কালাম আজাদ জানান, অপহরণ চেষ্টার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। মেয়েটির বার বার জ্ঞান ফিরে আবার অজ্ঞান হয়ে পড়ছে। সবকিছু তদন্ত করে ও মেয়েটির কাছ থেকে জানতে পারলে বলা যাবে আসলে কি ঘটনা ঘটেছিল। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

দুবলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিলুফা ইয়াসমিন ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি ।
দুবলিয়া ইউনিয়ন শ্রমিকলীগ নেতা খুদু খা বলেন, আমার ছেলেকে ষড়যন্ত্রমূলক এখানে জড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। আমার ছেলে এ বিষয়ে কিছু জানে না ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ