পাবনায় ২৫-৩০ হাজার টাকা ঋণের মামলায় ১২ কৃষক কারাগারে

আপডেট: নভেম্বর ২৬, ২০২২, ৭:৫৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


পাবনার ঈশ্বরদীতে ২৫-৩০ হাজার টাকা ঋণ খেলাপির মামলায় ৩৭ জন প্রান্তিক কৃষকের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। এর মধ্যে ১২ জনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার সকালে গ্রেপ্তারের পর দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কৃষকদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঈশ্বরদী থানার ওসি অরবিন্দ সরকার।

তবে ঋণের টাকা পরিশোধ করার পরও তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে বলে দাবি ওই কৃষকদের।
গ্রেপ্তাররা হলেন- ঈশ্বরদী উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ভাড়ইমারি গ্রামের শুকুর প্রামাণিকের ছেলে আলম প্রামাণিক (৫০), মনি মন্ডলের মন্ডলের ছেলে মাহাতাব মন্ডল (৪৫), মৃত সোবহান মন্ডলের ছেলে আবদুল গণি মন্ডল (৫০), কামাল প্রামাণিকের ছেলে শামীম হোসেন (৪৫), মৃত আয়েজ উদ্দিনের ছেলে সামাদ প্রামাণিক (৪৩), মৃত সামির উদ্দিনের ছেলে নূর বক্স (৪৫), রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আকরাম (৪৬), লালু খাঁর ছেলে মোহাম্মদ রজব আলী (৪০), মৃত কোরবান আলীর ছেলে কিতাব আলী (৫০), হারেজ মিয়ার ছেলে হান্নান মিয়া (৪৩), মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ মজনু (৪০) ও মৃত আখের উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান (৫০)।

মামলার সূত্রে ওসি অরবিন্দ সরকার জানান, বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক নামে একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা করে ঋণ নিয়েছিলেন ৩৭ জন কৃষক। এই ঋণ ফেরত না দেওয়ার অভিযোগে ২০২১ সালে সমবায় ব্যাংকের পক্ষে মোজাম্মেল হক নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে কৃষকদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

সেই মামলায় বুধবার কৃষকদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।এর ভিত্তিতে ১২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
গ্রেপ্তারকৃত কৃষকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে ওসি বলেন, কৃষকরা কেউ কেউ ঋণের টাকা পরিশোধ করেছেন বলে জানিয়েছেন, আবার কারো অল্প কিছু কিছু বকেয়া আছে বলে জানিয়েছেন। তবে অনেকদিন কৃষকরা ঋণের বিষয়ে খোঁজখবর নিতে পারেনি বলে স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংকের জেলা কার্যালয়ের দায়িত্বশীল কারো কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ