পার্থক্য টের পেলেন মিরাজ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



অভিষেক সিরিজে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাজিমাত করেছিলেন তরুণ অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। তার ঘূর্ণি জাদুতেই ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা কুপোকাত হয়েছিল। যেখানে ১৯টি উইকেট নিয়ে হয়েছিলেন রেকর্ডের ভাগিদার।
যদিও নিউজিল্যান্ডে গিয়ে সিমিং কন্ডিশনে সেভাবে নিজের অস্ত্র ব্যবহার করতে পারেন নি। এমনকি ভারতে প্রায় একই কন্ডিশনে বোলিং করেও খুব বেশি সফল হন নি। ৪২ ওভার বোলিং করে ১৬৫ রান খরচায় পেয়েছেন দুটি উইকেট। এককথায় বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে অগ্নিপরীক্ষা দিতে হয়েছে মিরাজকে। অবশ্য তরুণ এই অলরাউন্ডার নিজেও উপলব্ধি করেছেন সেই পার্থক্যটুকু, ‘আমার অভিষেক ম্যাচে প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড। তারা টার্নিং উইকেটে খেলে অভ্যস্ত নয়। ভারত টার্নিং উইকেটে খেলে অভ্যস্ত। আর এই উইকেটেতো পুরোপুরি টার্নিং নেই। পার্থক্যটা এখানেই। টার্নিং উইকেটে বোলিং করে কিছু বাজে বল দিয়েও বাঁচা যায়। কিন্তু এই ধরনের উইকেটে পুরো সময় টাইট বোলিং করতে হয়।’
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে ৭ উইকেট নিয়েছিলেন মেহেদী। চট্টগ্রামে নিজের ঘূর্ণিজাদুতে ব্যাটসম্যানদের নিয়ে এক কথায় খেলেছিলেন। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে গত দুইদিনে তেমনটা দেখা যায়নি। তবে কি চাপে ছিলেন মিরাজ? তিনি অবশ্য তেমনটা স্বীকার করলেন না, ‘চাপ সব সময়ই থাকে। প্রত্যাশা অনেক বেশি থাকে। সব সময়ই প্রত্যাশা পূরণ করা যায় না। আরও ২-১টা উইকেট পেলে অবশ্যই ভালো লাগতো। তবে সব সময় এক রকম যাবে না। চেষ্টা করবো ভবিষ্যতে আরও ভালো কিছু করতে।’-বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ