পার্বতীপুরে মূর্তি ভাঙচুরের অভিযোগে দুই কিশোর গ্রেফতার

আপডেট: মে ২৫, ২০২১, ৯:২৯ অপরাহ্ণ

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:


দিনাজপুরের পার্বতীপুরে কৌতুহল বসতঃ শিব মূর্তি ভাঙচুর করার অভিযোগে দুই কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় পার্বতীপুর উপজেলার মোমিনপুর ইউনিয়নের চন্দ্রপুর এলাকা থেকে তাদেরেেক গ্রেফতার করা হয়।
জানা গেছে, পার্বতীপুর উপজেলার ইন্দ্রপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র খাদেমুল ইসলাম (১৩) ও যশাই উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র হাফিজুলু ইসলাম (১৩) এবং ইন্দ্রপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র কালাম মিয়াসহ আরো কয়েকজন ছাত্র মিলে সোমবার বিকেলে নদীতে গোসল করে বাড়ি ফেরার পথে নদীর পাড়ের বড় শ্মসান এলাকার একটি অরক্ষিত ঘরের শিব মূর্তির দিকে তাদের নজর পরে। এ সময় কালাম মিয়া ইট দিয়ে ঢিল মেরে শিব মূর্তির মাথা ভেঙে ফেলে আর হাত ভাঙে হাফিজুল ইসলাম। এ কাজে তাদের সহযোগিতা করে খাদেমুল ইসলাম। মুর্তি ভাঙা অপরাধে স্থানীয় গ্রাম পুলিশ হাফিজুল ও খাদেমুলকে আটক করে। পরে খবর পেয়ে সোমবার সন্ধ্যায় পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। মূর্তি ভাঙচুরকারীদের বাড়ি উপজেলার মোমিনপুর ইউনিয়নের চন্দ্রপুর হাফেজ ডাঙ্গা গ্রামে।
এ ব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে গ্রেফতারকৃতরা বলেছে, সে সময় মাথায় কি চেপে বসেছিল জানি না, হঠাৎ করে আমরা কাজটি করে ফেলেছি। বুঝতে পারিনি এজন্য আমাদের এই অবস্থা হবে।
পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরদ্বয়কে থানায় আনা হয়েছে। তবে তারা কৌতুহল বসতঃ মুর্তিটি ভাঙচুর করেছে বলে স্বীকার করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ