পুঠিয়ায় অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি, আটক ১

আপডেট: জানুয়ারি ২৫, ২০২২, ১০:১৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় অপহরণের শিকার এক যুবককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। অপহরনের শিকার যুবকের নাম ইসমাইল হোসেন (২১)। এ ঘটনায় ইসমাইলের পিতা বাদি হয়ে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে ৫ জনের নামে থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।

এরই প্রেক্ষিত্রে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত একজনকে আটক করেছেন। আটককৃত অভিযুক্তর নাম মনোয়ার হোসেন। সে পুঠিয়া উপজেলার দিঘলকান্দি গ্রামের জালাল উদ্দীনের ছেলে।

অপরদিকে অপহরণের শিকার ইসমাইল হোসেন পেশায় ট্রাক হেলপার ও নাটোর জেলার বাগাতিপাড়া উপজেলার চন্দ্র খৈইর গ্রামের মন্জুর রহমানের ছেলে।

থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ জানুয়ারি সন্ধ্যার দিকে ভুক্তভোগি ইসমাইল হোসেনকে তার বাড়ির সামনে থেকে ৩টি মোটরসাইকেল যোগে ৫ জন ব্যক্তি তাকে অপহরণ করে। এরপর অপহরণে অভিযুক্তরা ২৪ জানুয়ারী বিকেলে মুঠোফোনের মাধ্যমে তার পিতার নিকট দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। আর মুক্তিপণের টাকা পুঠিয়ার বানেশ্বর বাজারে নিয়ে আসতে নির্দেশ দেয়। এঘটনায় ভুক্তভোগির পিতা থানায় একটি অভিযোগ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পুঠিয়া থানার ওসি সোহরাওয়াদী হোসেন বলেন, অপহরণের ঘটনা ভুক্তভোগির পিতা গতরাতে থানায় অবহিত করেন। পুলিশ প্রযুক্তির মাধ্যমে বানেশ্বর ইউনিয়নের দিঘলকান্দি গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় অপহরণের শিকার ইসমাইলকে উদ্ধার করা হয়। সেই সাথে এই ঘটনার সাথে জড়িত একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।