পুঠিয়ায় আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কাজ, পাঁচজনের সাজা

আপডেট: নভেম্বর ৩০, ২০১৬, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

পুঠিয়া প্রতিনিধি


রাজশাহীর পুঠিয়ায় আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার দায়ে পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- ও জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত সোমবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার বানেশ্বর বাজারের গ্রীণ ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।
এসময় তিনজন নারীসহ চারজনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- ও আরেকজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদ- প্রদান করা হয়।
থানার অফিসার ইনচার্জ হাফিজুর রহমান জানান, এদিন রাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী মেজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্ব থানার এসআই মতিউর রহমান ও তার সঙ্গীয় ফোর্স পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজারে অবস্থিত গ্রীণ ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে আটক করে। আটককৃতরা হলেন, চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলার কলাকান্দা গ্রামের, ব্রাক্ষণবাড়ীয়া জেলার বাঞ্চারামপুর উপজেলার মায়েরামপুর গ্রামের ও রংপুর জেলার কোতয়ালী উপজেলার পুটিমারী গ্রামের এক নারী (২৮)। অপর দুইজন পাবনা জেলার আমিনপুরের বাগনপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে রতন মোল্লা (৩৮) এবং পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর খুটিপাড়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে বুলবুল আহম্মেদকে (২৩) আটক করে।
এলাকাবাসী জানায়, এই আবাসিক হোটেলটি প্রথমে একজন ক্লিনিক ব্যবসায়ী ডায়েলস নামে যাত্রা শুরু করে। এরপর কয়েকবার অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে একাধীন নারী-পুরুষকে আটক হয়। এক পর্যায়ে পুঠিয়া উপজেলা পরিষদের উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী মেজিস্ট্রেট এর নেতৃত্ব অভিযান চালিয়ে হোটেলটি সিলগালা করা হয়। এরপর রাতের আধারে হোটেলটির মালিক নাম পরিবর্তন করে হোটেলটি গ্রীণ ইন্টারন্যাশনাল করে। তবে এই নামটি পরিবর্তনের পরও কয়েকবার  নারী-পুরুষকে আটক করে পুলিশ।
এলাকাবাসী আরো জানায়, বানেশ্বর বাজারে কয়েকটি আবাসিক হোটেল আছে তার প্রশাসনের চোখে ধুলো দিয়ে দিনের বেলায় বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে। বিষয়টি ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃষ্টি দেয়ার জন্য অনুরোধ জানান এলাকাবাসী।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ