পুঠিয়ায় গৃহবধূ হত্যা মামলা ।। চারমাস পর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৬, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

পুঠিয়া প্রতিনিধি


রাজশাহীর পুঠিয়ায় প্রায় ৪ মাস পর কবর থেকে এক গৃহবধূর লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শান্তনু কুমার দাসের নেতৃত্বে উপজেলার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রাম থেকে ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ উদ্ধার করা হয়।
জানা গেছে, চলতি বছর আগস্ট মাসের ১ম সপ্তায় গৃহবধূ রওশনারা বেগম মারা যায়। সে সময় তার পরিবারের পক্ষ থেকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে বলে জানানো হয়। তার কিছুদিন পর রওশনারা বেগমের মেয়ে বাদী হয়ে রাজশাহীর একটি আদালতে হত্যা মামলার দায়ের করেন। এরই সূত্র ধরে মামলার তদন্তকারী অফিসার পিবিআই এর পুলিশ পরিদর্শক শহিদুল্লাহ মামলার তদন্তের জন্য রওশনারা বেগমের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য আদালতের নিকট আবেদন করে। আদালত লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য নির্দেশ দিলে বুধবার সকাল ১০টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শান্তনু কুমার দাসের  নেতৃত্বে পুঠিয়া উপজেলার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী রওশনারা বেগমের (৫০) লাশ এলাকার কবরস্থান থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এসময় পিবিআই এর পুলিশ পরিদর্শক শহিদুল্লাহ ও পুঠিয়া থানার এসআই মতিউর রহমান ও সঙ্গীয় ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ