পুঠিয়ায় স্ত্রীর স্বীকৃতি না পাওয়ায় কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৭, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

পুঠিয়া প্রতিনিধি


রাজশাহীর পুঠিয়ার বেলপুকুরে স্ত্রীর স্বীকৃতি না পাওয়ায় এক কলেজ ছাত্রী ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে।
থানা সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার বেলপুকুরিয়া ইউনিয়নের বড় ধাদাশ গ্রামের নিজাম উদ্দিনের কলেজ পড়–য়া মেয়ে মমতাজ খাতুন (২৫) রাতে ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।
মতাজের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাতের খাবার খাওয়ার পরে মমতাজ তার নিজ ঘরে ঘুমাতে যায়। গতকাল সকালে তাকে ঘুম থেকে ডাকলে সাড়াশব্দ না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখেন সে বিছানায় মৃত অবস্থায় পড়ে আছে।
এলাকাবাসী জানায়, মমতাজ বিড়ালদহ এলাকার রনি আহম্মেদ নামের এক ছেলের সাথে প্রায় ৩ মাস আগে প্রেম করে কোর্টে বিয়ে করেন। কিন্তু পারিবারিক স্বীকৃতি না পাওয়ায় মমতাজ তার বাবার বাড়িতে থাকতো সে। তার স্বামী রনির সাথে মাঝে মধ্যে মোবাইলে ফোনে ঝগড়া হত। তার উপর অভিমান করে ঘুমের ওষুধ খেয়েছে বলে ধারনা করছেন তারা।
পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান ভূঁইয়া জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে এক সথে অনেক ঘুমের ওষুধ খেয়েই তার মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ