পুঠিয়া-ভবানীগঞ্জ সড়ক নির্মাণে ১৩০ কোটি টাকা বরাদ্দ

আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০২০, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহীর পুঠিয়া-তাহেরপুর-ভবানীগঞ্জ ২৭ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণে ১৩০ কোটি টাকা বরাদ্দ একনেকে অনুমোদন হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় গতকাল মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) এমন নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।
একনেকে অনুমোদন পাওয়া পুঠিয়া-তাহেরপুর-ভবানীগঞ্জ সড়কটি ২৪ ফুট চওড়া করা হবে। দীর্ঘদিন ধরেই সড়কটি চলাচলের অযোগ্য ছিলো। অথচ এই সড়কটি রাজশাহীর পুঠিয়া, বাগমারা, দুর্গাপুর, নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলাসহ আশপাশের এলাকার বেশকিছু মানুষের যোগাযোগের প্রধান সড়ক। রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের এমপি ডা. মনসুর রহমানের প্রচেষ্টা ও যোগাযোগের ভিত্তিতে অবশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাস্তাটি নির্মাণের জন্য ১৩০ কোটি টাকা বরাদ্ধ করেছেন।
সাংসদ প্রফেসর ডা. মনসুর রহমান বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে এই রাস্তাটি অবহেলিত ছিলো। আমি রাস্তাটি করার জন্য যোগাযোগ করেছিলাম সড়ক পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে। পরে পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়েও যোগাযোগ করেছিলাম। আমার প্রচেষ্টার পরিপ্রেক্ষিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সদয় হয়ে এই রাস্তাটি একনেকে অনুমতি দিয়েছেন। রাস্তাটি ২৪ ফুট চওড়া ও ২৭ কিলোমিটার দীর্ঘ হবে। এতে এঅঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ উপকৃত হবেন। একারণে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’
এদিকে রাস্তাটি একনেকে অনুমোদন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সাংসদ ডা. মনসুর রহমানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন পুঠিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু। তিনি বলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমানের প্রচেষ্টায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একনেকে ১৩০ কোটি টাকা বরাদ্ধ করেছেন পুঠিয়া-তাহেরপুর-ভবানীগঞ্জ সড়ক নির্মাণে। এই রাস্তাটি নির্মাণ হলে এ অঞ্চলের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি যোগাযোগ ক্ষেত্রেও উন্নতি হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ