পুলিশকে ঘুষ ৫ বছরের শিশুর

আপডেট: জুন ৩০, ২০১৭, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মায়ের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ি তারা যাতে শিগগিরই শাস্তি পায় তার জন্য পুলিশকে ঘুষ দিতে চাইল ৫ বছরের শিশু। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে।
উত্তরপ্রদেশ মিরাটের বাসিন্দা মানবী মঙ্গলবার আইজি রাম কুমারের দপ্তরে এসেছিল দাদু ও মামার সঙ্গে। মানবীর মা সীমা শ্বশুরবাড়ির অত্যাচারে আত্মঘাতী হয়েছিলেন। মায়ের মৃত্যুতে যারা দায়ি তাদের শাস্তি চায় মানবী। আইজি রাম কুমারের সঙ্গে কথা বলে মানবীর দাদু শান্তিস্বরূপ শর্মা এবং মামা রোহিত শর্মা বাইরে বেরিয়েছিলেন। সেই সময় মানবী তার ব্যাগ থেকে একটা মাটির ভাঁড় বার করে তা আইজির দিকে বাড়িয়ে দেয়। মাটির ভাঁড়ে জমানো তার পুরো সঞ্চয় পুলিশ আধিকারিকের দিকে বাড়িয়ে মানবী বলে, ‘এটা নিয়ে আমার মা যাদের জন্য মারা গেছে তাদের শাস্তি দাও।’
ছোট্ট মানবীর এই আচরণে রীতিমতো অবাক আইজি। তার এই লক্ষ্মীর ঝাঁপি সঙ্গে আনার কারণ জানতে চাইলে মানবী বলে, ‘সবাই বলে টাকা ছাড়া কোনও কাজ হয় না।’ আসলে ছোট্ট মানবীও জেনে গিয়েছে সরকারি দপ্তরে টাকাই আসল। যদিও আইজি রাম কুমার লক্ষ্মীর ঝাঁপি মানবীর হাতে দিয়ে তাকে আশ্বাস দিয়েছে মায়ের মৃত্যুতে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন তিনি।
বছর পাঁচেক আগে সঞ্জীব কৌশিকের সঙ্গে বিয়ে হয় সীমার। মানবী তাঁদের একমাত্র সন্তান। বিয়ের পরেই সঞ্জীব এবং তাঁর পরিবারের লোক সীমার ওপর পণের জন্য অত্যাচার চালায়। পুলিশে অভিযোগ করেও কোনও সুরাহা হয়নি এই সমস্যার। শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সীমা। পুলিশ এই ঘটনায় সীমার স্বামীকে গ্রেপ্তার করলেও বাকিদের এখনও ধরতে পারেনি।
তথ্যসূত্র: আজকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ