পুলিশের থেকে ১২ লাখ টাকা ছিনিয়ে পালাল বিজেপি কর্মীরা! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তেলেঙ্গানায়

আপডেট: October 27, 2020, 4:02 pm

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতের তেলেঙ্গানায় উপনির্বাচনের আর সপ্তাহখানেক বাকি। এই সময় এক নাটকীয় ঘটনার সাক্ষী থাকল রাজ্য। সেখানকার দুব্বাক্ক অঞ্চলের সিদ্দিপেটে পুলিশের কাছ থেকে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। দুব্বাকের বিজেপি প্রার্থী এম রঘুনন্দন রাওয়ের এক ঘনিষ্ঠ আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ১৮ কোটি ৬৭ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেছিল পুলিশ। অভিযোগ, এরপরই পুলিশকর্মীদের কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নিয়ে নেিয় পালিয়ে যায় বিজেপি সমর্থকরা।
বিজেপি কর্মীদের পালটা অভিযোগ, পুলিশই ব্যাগে করে টাকা এনে ওখানে রাখার চেষ্টা করেছিল। যে ব্যক্তির বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছিল পুলিশ তাঁর নাম সুরভি অঞ্জন রাও। পুলিশ জানিয়েছে, উদ্ধার করা টাকা থেকে ১২ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে এলাকা থেকে চম্পট দেয় গেরুয়া শিবিরের কর্মীরা। সিদ্দিপেটের পুলিশ কমিশনার জোয়েল ডেভিস জানিয়েছেন, বাকি ৫ লক্ষ ৮৭ হাজার টাকা আটক করেছেন সিদ্দিপেটের এগজিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট।
তল্লাশির স্থানে পৌঁছলে তেলেঙ্গানার বিজেপি প্রধান বান্দি সঞ্জয় কুমারকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ কমিশনার জানাচ্ছেন, সোমবার সুরভি অঞ্জন রাওয়ের বাড়ি থেকে ওই টাকা বাজেয়াপ্ত করার পর তাঁর কাছ থেকে জানতে চাওয়া হয় ওই টাকার উৎস কী। তখনই সুরভি বলেন, তাঁর কাছে ওই টাকা পাঠিয়েছেন তাঁর শ্যালক জিতেন্দর রাও। গাড়ির ড্রাইভারের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে বলা হয়েছে, ওই টাকা নির্বাচনী প্রচারে খরচ করার জন্য। তিনটি জায়গায় তল্লাশি চালানো হয়। তার মধ্যে সিদ্দিপেটের পুরসভার চেয়ারম্যানের বাড়িও ছিল।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ