পূজাকে সামনে রেখে জমে উঠেছে কেনাকাটা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২, ১১:১৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


হিন্দু ধর্মাম্বলম্বীদের প্রাণের উৎসব দুর্গাপূজা। মহালয়ার মধ্য দিয়ে রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) শুরু হয়েছে শারদীয় দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা। তবে মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে ১ অক্টোবর। উৎসবকে সামনে রেখে রাজশাহীর বাজারগুলোতে কেনাকাটা জমজমাট।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার, নিউমার্কেট, কোর্টবাজার এলাকা ঘুরে দেখা যায়, উৎসবের আমেজে জমে উঠেছে প্রায় প্রতিটি দোকানপাট। গার্মেন্টসের দোকানগুলোতে ভিড় চোখে পড়ার মতো।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনা মহামারীর নানা বিধি-নিষেধ কাটিয়ে উৎসব কেন্দ্রীক বেচাকেনা এখন জমে উঠেছে। দোকানগুলোতেও নতুন পোশাকের সমাহার বাড়িয়েছেন বিক্রেতারা।

পূজাকে সামনে রেখে বাজার করতে এসেছিলেন তমা দাস। তিনি বলেন, এবার ভালোই জমে উঠেছে কেনাকাটা। উৎসব কেন্দ্রীক কালেকশনও ভালো আছে। তবে সবকিছুর মতো জামা-কাপড়ের দামও আগের চেয়ে বেশি। কিন্তু উৎসব কেন্দ্রীক কেনাকাটা করাই লাগে।

তিনি আরও বলেন, পরিবারসহ নিজের জন্যও নতুন পোশাক কিনেছি। দেবী মায়ের জন্য একটি শাড়ি কিনেছি।
সাহেববাজারের কাপড়পট্টির একটি শাড়ির দোকানে কথা হয় প্রমীলা দেবীর সঙ্গে। তিনি বলেন, আমাদের ছোটবেলার মত পূজোর আমেজ তো এখন আর নেই। তবু মা আসছেন, আনন্দ ঘরে ঘরে। নিজের পাশাপাশি আত্মীয়-স্বজন সবার জন্য শাড়ি কিনতে এসেছি।
তিনি আরও বলেন, এ যুগের মেয়েরা একটু নতুন কিছুই খুঁজে প্রতিবার। আমার পছন্দ আমার মেয়ের পছন্দ মিলবে না। তাই মেয়েকেও সঙ্গে এনেছি। তার জন্য নতুন ডিজাইনের শাড়ি খুঁজছি।

আরডিএ মার্কেট ছাড়াও শপিং সেন্টারগুলোতেও দেখা যাচ্ছে ভিড়। শপিং সেন্টার ‘আড়ং’ এ কথা হয় পাঞ্জাবি কিনতে আসা একজন ক্রেতা অনিক কুমারের সাথে। তিনি জানান, পূজো উপলক্ষে আড়ংয়ের জিনিসপত্রের দামে বিশেষ কোনো পার্থক্য চোখে পড়ে নি। তাছাড়া বর্তমানে সবকিছুর দামই বেশি। তবুও পূজোর সময়। উৎসব কেন্দ্রীক কেনাকাটা তো আর থেমে থাকে না। সাধ্যের মধ্যেই পাঞ্জাবি কেনার চেষ্টা করেছি।

শাড়ি বিক্রেতা জাব্বার বলেন, অন্যান্য স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে উৎসবকে সামনে রেখে জমে উঠছে কেনাকাটা। সামনে বেচাবিক্রি আরও বাড়বে। এবার দামি শাড়ির মধ্যে নেট, টিস্যুর চাহিদা বেশি। আর কমের মধ্যে হাফসিল্ক শাড়িগুলো বেশি বিক্রি হচ্ছে। দাম আগের চেয়ে বেশি হলেও আমাদের লাভ কম। আগে যে হাফসিল্ক ৬০০ টাকায় বিক্রি হতো। এবার সেগুলার বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকায়। নেটের শাড়ির দাম আড়াই হাজার থেকে শুরু।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ