পূজায় নতুন পোশাক কেনাকাটায় ব্যস্ত সনাতন ধর্মালম্বীরা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৭, ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


শারদীয় দুর্গাৎসব উপলক্ষে নতুন পোশাক কেনাকাটা করছেন সনাতন ধর্মালম্বীরা-সোনার দেশ

নগরীতে পূজার বাজার বেশ জমে উঠেছে। শারদীয় দুর্গাৎসবকে ঘিরে সনাতন ধর্মালম্বীরা নতুন পোশাক কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। সব ধরনের পোশাকের সমাহার হওয়ায় বাজারে প্রচুর ক্রেতা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত উপচে ভিড় লক্ষ্য করা যায়। মহাষষ্ঠীর মধ্যেদিয়ে শুরু হবে আজ শারদীয় দুর্গাৎসব। ফলে ব্যাপক হারে কেনাবেচা হচ্ছে বাজারে। নি¤্নবৃত্ত ও স্বল্প আয়ের লোকেরা ভিড় করছেন ফুটপাতের দোকানগুলোতে। সবখানেই গভীর রাত পর্যন্ত চলছে কেনাবেচা।
নগরীর সাহেববাজার আরডিএ মার্কেট, গণকপাড়া, নিউমার্কেট, কোর্ট বাজার, কাটাখালি বাজার, নওদাপাড়া বাজারের মার্কেটসহ বড় বিপণিবিতানগুলোতে নিত্য নতুন ডিজাইনের দেশি-বিদেশি নানা ধরনের পোশাক, জুতা ও প্রসাধনীর পসরা সাজানো হয়েছে। এসব বিপণিবিতানের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সব ধরনের শাড়ি, থ্রি পিস, পাঞ্জাবি, টি শার্ট বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া থ্রিপিসের মধ্যে খানদানি, রাম্বু, আহিলুরি, বিন্দিয়া, অদিতা প্রভূতি বিক্রি হচ্ছে।
আরডিএ মাকের্ট এলাকার কাপড় ব্যবসায়ীরা জানান, এবারে শাড়ির মধ্যে চাহিদা বেশি সানন্দা কাতান, কাঞ্জিবরণ, গাদুয়াল, মসলিন জামদানি ও ক্যাটরিনার চাহিদা বেশি। তরুণীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে মনপুরা, মাটাগগালি, জিপসি ও টপস। তরুণদের পছন্দ শর্ট পাঞ্জাবি। দেশি মসলিন জামদানি, টাঙ্গাইল জামদানি শাড়ির চাহিদাও প্রচুর।
এসব শাড়ি বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। ছেলেদের মধ্যে দেশিয় কারু কাজের পাঞ্জাবি ছাড়াও শেরওয়ানি, জিন্স এম্বুশ, থ্রেট প্যান্ট, শর্ট শার্ট ও ফতুয়ার চাহিদা বেশি। এছাড়া উৎপাদিত তাঁতের পোশাকের মধ্যে বেশি বিক্রি হচ্ছে শাড়ি, শর্ট পাঞ্জাবি ও ফতুয়া।
সনাতন ধর্মালম্বীদের বছর ঘুরে আবারো দুর্গাপূজার উৎসব শুরু। আর দুর্গাপূজা মানেই সকালে অঞ্জলি নেয়া, বিকেলে সবান্ধব মণ্ডপে মণ্ডপে ঘোরাঘুরি, খাওয়া-দাওয়া আরো কত কী ! এছাড়া বাঙালির উৎসব মানেইতো নতুন পোশাক। বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় এ ধর্মীয় উৎসবকে সামনে রেখে নগরীর বিপণিবিতানগুলোতে জমে উঠেছে।
বাজারের কাপড় ও গামেন্টর্স ব্যবসায়ীদের মতে, পূজা উপলক্ষে দোকানে ভারতের চেন্নাই, কলকাতা, ব্যাঙ্গালোর, দিল্লি ও জয়পুর থেকে আনা বিভিন্ন রঙ ও ডিজাইনের শাড়ি বিক্রি হচ্ছে। তবে বেশিরভাগ তরুণই বিভিন্ন ব্যান্ডের নামের পোশাক কিনছেন পূজায়। এছাড়া জিপসি ও আনারকলি সালোয়ার কামিজও কিনছেন মেয়েরা। নানা নকশা ও ডিজাইনের জিপসি ও আনারকলি চাহিদা রয়েছে। দোকানিদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বেশির ভাগ জামাই ভারত থেকে আমদানি করা। এছাড়া দেশীয় জামাও রয়েছে। তবে ভারতীয় জামার প্রতিই ক্রেতাদের আগ্রহ বেশি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ