পেঁয়াজের নতুন জাত উদ্ভাবন, ফলন ৩ গুণ বেশি

আপডেট: জুন ৬, ২০২০, ২:৪২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


সাধারণ পেঁয়াজের চেয়ে তিন গুণ বেশি ফলন দেয় এমন পেঁয়াজ উদ্ভাবন করা হয়েছে বলে মাগুরা আঞ্চলিক মশলা গবেষণা কেন্দ্র জানিয়েছে।
কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, উদ্ভাবনের পর তারা চলতি মৌসুমে এই পেঁয়াজ মাঠপর্যায়ে সফলভাবে চাষ করেছেন। তারা এর নাম দিয়েছেন বারি-৫।
মনিরুজ্জামান বলেন, পেঁয়াজ সাধারণত শীতকালীন ফসল হলেও বারি-৫ শীত-গ্রীস্ম উভয় মৌসুমে চাষ করা যায়। সাধারণ পেঁয়াজ যেখানে হেক্টরে ফলন দেয় সাত-আট টন, সেখানে বারি-৫ পেঁয়াজের ফলন হয় ২৪ থেকে ২৫ টন।
দেশি পেঁয়াজের মত এ পেঁয়াজের খোসা পাতলা হওয়ায় সহজে সংরক্ষণ করা যায় জানিয়ে তিনি বলেন, চলতি মৌসুমে তারা ১০ একর জমিতে সফলভাবে বারি-৫ চাষ করেছেন। গ্রীস্মকালে সারাদেশে এ পেঁয়াজ চাষ ছড়িয়ে দিতে পারলে কৃষক যেমন লাভবান হবেন তেমনি মাত্র এক বছরের মধ্যে দেশে পেঁয়াজের ঘাটতি মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করা সম্ভব হবে।
বৃহস্পতি ও শুক্রবার দুই দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে মনিরুজ্জামান বারি-৫ পেঁয়াজ চাষের সফলতা ও চাষপদ্ধতি সম্পর্কে জানান।
অনুষ্ঠানে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের খুলনা অঞ্চলের পরিচালক পার্থ প্রতিম সাহা, মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জাহিদুল আমিন ও প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন ছিলেন।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ