প্রকাশ্য রাস্তায় ‘খুন’ ঝাড়খন্ডের বিচারক, সিসিটিভি ফুটেজ ঘিরে চাঞ্চল্য

আপডেট: জুলাই ২৯, ২০২১, ১০:১১ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


প্রথমে ভাবা হয়েছিল আর পাঁচটি সাধারণ দুর্ঘটনার মতো কিছু। সকালে জগিং করতে বেরিয়েছিলেন বিচারক। একটি অটো এসে ধাক্কা দিয়েছিল তাঁকে। তাই দুর্ঘটনাই ধরে নিয়েছিল পুলিশ। কিন্তু না। ভুল ভাঙল ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ সামনে আসতেই। যা দেখে যে কেউ বলে দেবেন, এটি নিছকই দুর্ঘটনা নয়, একেবারে পরিকল্পনামাফিক খুন করা হয়েছে ঝাড়খন্ডের জেলা এবং অতিরিক্ত দায়রা আদালতের বিচারক উত্তম আনন্দকে। সেই নিয়েই তুমুল হইচই পড়ে গেল গোটা দেশে। জল গড়াল সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।
বুধবার ভোর ৫টায় ধানবাদের রাস্তায় জগিং করতে বেরিয়েছিলেন বিচারক উত্তম আনন্দ। বাড়ি থেকে আধ কিলোমিটার দূরে একটি অটো তাঁকে ধাক্কা দেয়। তার পর সোজা বেরিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করেন। সেখানেই মৃত্যু হয় আনন্দের। যদিও তখনও তাঁর পরিচয় জানা যায়নি।
সকাল ৭টার সময়ও বাড়ি ফেরেননি দেখে পরিবারের লোকজন থানায় অভিযোগ জানান। তখনই পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এরপর হাসপাতালে খোঁজ পেয়ে পৌঁছে যান পুলিশ আধিকারিকরা। গোটা চলে আসে গোটা ঘটনা। ধানবাদে বেশ কয়েক জন মাফিয়াদের মামলা শুনছিলেন আনন্দ। দিন কয়েক আগে ২ জন গ্যাংস্টারকে জামিন দিতে অস্বীকারও করেন। তাঁর খুনের সঙ্গে এসবের যোগ রয়েছে কিনা, খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
এই ঘটনার প্রসঙ্গে এদিন আবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামান্না জানালেন, “এই নিয়ে ঝাড়খ- হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা হয়েছে। আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত, এই নিয়ে পদক্ষেপ করব।” অভিযুক্ত অটো চালক এবং তার দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধাক্কা মারার কয়েক ঘণ্টা আগেই অটোটি চুরি করা হয়েছিল বলেও জানা গিয়েছে। এদিকে, সুপ্রিম কোর্টের অন্য একটি এজলাসে এই মৃত্যুর ভিডিও নিয়েও শুনানি চলছে। কে বা কারা এসব করেছে, তা খতিয়ে দেখার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। তবে গোটা ঘটনায় দেশজুড়ে রীতিমতো আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন