প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০, ১:১৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা সোনার দেশ

প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১১ টায় প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির উদ্যোগে নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের সাইন বোর্ড, বিল বোর্ড বাংলা অক্ষরে লেখা ও সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু সহ অবিলম্বে নির্ধারিত স্থানে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌত অবকাঠামো নিমাণের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কলামিস্ট শাহ জিয়াউদ্দিনের পরিচালনায় এ সময় ব্যক্তব্য দেন, শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, রাকসুর সাবেক ভিপি সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা রাগীব আহসান মুন্না, প্রবীণ সাংবাদিক মুস্তাফিজুর রহমান খান আলম, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ডের সহকারী কমান্ডার আলী আর্সলান অপু, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সুভাষচন্দ্র হেমব্রম, যুব ইউনিয়নের নেতা মোস্তাফিজুর রহমান ডুগু, প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির যুগ্ম সম্পাদক শিল্পী আজমুল সাচ্চু, উন্নয়নকর্মি মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু প্রমুখ।
এ সময় বক্তারা বলেন, হাইকোটের্রে নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও প্রশাসনের উদাসীনতায় দেশের বিল বোর্ড সাইনবোর্ড বাংলা অক্ষরে লেখার বিষয়ে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। বক্তারা প্রশাসনকে এ বিষয়ে উদ্যোগী হওয়ার জন্য আহবান জানান।
সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, রাজশাহীবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী এই নগরীতে একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার। বর্তমান সরকার প্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীবাসীর এই দাবিটি পূরণ করেছেন। ইতোমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌতিক অবকাঠামোসহ বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপনের জন্য নগরীর নওদাপাড়া বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় ভূমি নির্ধারণ করাসহ, ভূমিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো নির্মাণ করার আনুসাঙ্গিক কিছু কাজ প্রাথমিকভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। একটি বিশেষ মহল মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য নির্ধারিত জমিতে বিশ্ববিদ্যালয়টি স্থাপন না করার পায়তারা করছে। এই বিশেষ মহলটি টিকর ও সিলিন্দায় মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জমি দেখছেন। টিকর এবং সিলিন্দায় যে জমি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য দেখা হচ্ছে তা হলো তিন ফসলি। একটি স্বার্থান্বেষী মহল নিজেদের কায়েমি স্বার্থ হাসিলের উদ্দ্যেশে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য নির্ধারিত ভূমি অধিগ্রহণ করছে না। ফলে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়টি অনিশ্চয়তার দিকেই ধাবিত হচ্ছে। আর এই মহল বিশেষ উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে ভূমি অধিগ্রহণের বিষয়টি নিয়ে টালবাহানা করছে যাতে করে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় অন্যত্র চলে যায়। সমাবেশ থেকে দাবি করা হয় তাড়াতাড়ি নির্ধারিত স্থানে ভূমি অধিগ্রহণ করে অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শুরু করার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ