প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে মুণ্ডমালা পৌর নির্বাচনে প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে

আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০২১, ১:৪০ অপরাহ্ণ

লুৎফর রহমান তানোর :


আর মাত্র ছয়দিন বাকি । তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌরসভার নির্বাচন হতে। এর মধ্যেই প্রচণ্ড শীত দেখা দিয়ে। তার পরেই সেই শীত উপেক্ষা করে পৌরপিতা হতে হবে সেই আশায় প্রচার-প্রচারণা প্রার্থীরা বিভোর হয়ে পড়েছেন ।
মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা ভোটারদের মন কাড়তে প্রচার-প্রচারণা সভা-সমাবেশ চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা দিচ্ছেন নানা রকম প্রতিশ্রুতি। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। পুরো এলাকাজুড়ে শোভা পাচ্ছে পোস্টার ফেস্টুন ও নিজ নিজ প্রার্থীদের মাইকিংগের মাধ্যমে প্রচার প্রচারনা ।
আর সেই প্রচারনা চলছে দুপুর ২ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলছে। একথাই মাইকিং প্রচারনায় এলাকা উত্তাল থাকছে। দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই সরগরম হয়ে উঠছে মুণ্ডমালা পৌর নির্বাচনী পৌর এলাকা। পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিতে অপেক্ষার প্রহর গুনছে ভোটাররা। ভোটকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকা যেন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। এ পৌরসভা নির্বাচনে তিনজন মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ৩২ জন ও ১৩ জন নারী কাউন্সিলর প্রতিতদ্বন্দ্বিতা করছেন।
অপরদিকে মুণ্ডুমালা সবজি বাজারের সামনে পুলিশ স্কট বকস্ বসানো হয়েছে। এতে সর্বক্ষণ পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত থেকে পৌর নির্বাচন যেন কোনো ধরনের আইন-শৃঙ্খলার ব্যত্যয় না ঘটে সেই দিকে নজর রাখছেন।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী ও মুণ্ডমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন আমিন নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য প্রতিশ্রুতি বদ্ধ প্রচরণায় ভোট প্রার্থনা করছেন।
তিনি রাতদিন গণসংযোগ, উঠান বৈঠক সভা-সমাবেশের মাধ্যমে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তার নির্বাচনী প্রচারণায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়নসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।
বর্তমানে তিনি সকল প্রার্থীদের চেয়ে প্রচারনায় এগিয়ে রয়েছেন। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় তাকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পৌরসভাবাসি নৌকা ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন বলে তিনি তার আশা ব্যক্ত করেন।
অপরদিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মুণ্ডমালা পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ কবির স্থানীয়, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সভা-সমাবেশ উঠান বৈঠক ও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।
তিনি ভোটারদের বাড়িতে গিয়ে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ নেতাকর্মীদের উপর মিথ্যা মামলা হামলা ও নির্যাতনের কথা বলে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। সইে সাথে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চাচ্ছেন। তিনি জানান, বর্তমানে এলাকায় সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ বিরাজ করছে। এধরনের পরিবেশ নির্বাচনের দিন থাকলে ধানের শীষের বিজয় কেউ আটকে রাখতে পারবে না।
অপরদিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইদুর রহমান জগ প্র্রতীক নিয়ে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট ভিক্ষা চাচ্ছে। তিনিও সভা-সমাবেশ উঠান বৈঠক, গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। ভোটারদের মাঝে দিচ্ছেন নানা রকম প্রতিশ্রুতি। তিনি জানান, করোনাকালীন সাধারণ জনগণের মাঝে থেকে বিভিন্ন রকম সহযোগিতা করায় এই পৌরসভার মানুষ আমার জগ প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন বলে তিনি আশাবাদী।
এনিয়ে উপজেলা রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুশান্তকুমার মাহাতো জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য সকল প্রকার কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। ভোটরা যেন শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে সুন্দর পরিবেশে ভোট দিতে পরে সেই ব্যবস্থা ইতোমধ্যে সম্পূর্ণ করা হয়েছে। আশা করি শান্তিপূর্ণ ভাবে ৩০ তারিখে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ