প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে তিন অস্ত্র কারবারি গ্রেফতার

আপডেট: মে ২৮, ২০১৭, ১:১০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


গ্রেফতারকৃত আউয়াল আলী, শহীদুল ইসলাম কোয়েল মণ্ডল- র‌্যাব জনসংযোগ

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে রাজশাহীর বাঘায় অস্ত্রের তিন কারবারি র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন। গতকাল শনিবার রাত তিনটার দিকে বাঘা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে একটি দেশীয় শুটারগান, এক রাউন্ড গুলি, তিনটি মোবাইল ফোন সেট ও তিনটি সিম কার্ড উদ্ধারের কথা জানিয়েছে র‌্যাব।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, উপজেলার হেলালপুর গ্রামের দেসেন আলীর ছেলে আউয়াল আলী (৩৪), গঙ্গারামপুর গ্রামের মহৎ প্রামানিকের ছেলে শহীদুল ইসলাম (৪০) ও মৃত হামিদুর রহমানের ছেলে কোয়েল মণ্ডল (৩৪)। শনিবার দুপুরে র‌্যাবের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রেফতারকৃত আউয়াল ও শহীদুল ইসলাম র‌্যাবকে সংবাদ দেন, বাঘার কিশোরপুর গ্রামের জিয়াউর রহমান ওরফে জিয়া (৩৩) নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে অস্ত্র আছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে আউয়াল ও শহীদুলকে নিয়েই রাতে অভিযানে যায় র‌্যাব-৫ এর নাটোর ক্যাম্পের একটি দল।
সেখানে পৌঁছানোর পর আউয়াল এবং শহীদুলের কথাবার্তা ও গতিবিধি র‌্যাব সদস্যদের কাছে সন্দেহজনক মনে হয়। এ সময় আউয়ালের শরীর তল্লাশি করে র‌্যাব। তখন তার কাছে এক রাউন্ড গুলিসহ একটি শুটারগান পাওয়া যায়। এ সময় তাদের দু’জনকেই আটক করা হয়।
আউয়াল র‌্যাবকে জানান, তার সঙ্গে থাকা শহীদুল তাকে এ অস্ত্র দিয়েছেন। শহীদুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি জানান, কোয়েল মণ্ডল নামে আরেক ব্যক্তি তাকে অস্ত্রটি দিয়েছিলেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে কোয়েলকেও আটক করা হয়। পরবর্তীতে কোয়েলও বিষয়টি স্বীকার করেন।
র‌্যাব জানিয়েছে, আটকরা স্বীকার করেছেন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অস্ত্রটি দিয়ে তারা জিয়াউর রহমানকে ফাঁসিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন। তারা নিজেরাই অস্ত্রের ব্যবসা করেন বলেও স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।