প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি: ৯ জনকে আসামি করে মামলা

আপডেট: ডিসেম্বর ২১, ২০১৬, ১১:৩৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানে ত্রুটির ঘটনায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নয়জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।
এ ঘটনায় তদন্তের ভিত্তিতে বিমানের আট প্রকৌশলীসহ ওই নয়জনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল।
বিমানবন্দর থানার উপ পরিদর্শক মেহেদী হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বিভাগীয় তদন্তে ওই নয়জনের কর্তব্যে অবহেলা ও গাফিলতির প্রমাণ পাওয়ায় বিমানের পক্ষ থেকে এই মামলা করা হয়েছে।”
বিমানবন্দর থানার ওসি নূরে আজম মিয়াকে থানা থেকে তদন্তভার দেয়া হলেও ওই দায়িত্ব মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ওপর বর্তাতে পারে বলে জানান মেহেদী। ওসি নূরে আজম মিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বাংলাদেশ বিমানের পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট) এমএম আসাদুজ্জামান মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে মামলাটি দায়ের করেন।
গত ২৭ নভেম্বর হাঙ্গেরি যাওয়ার পথে শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তুর্কমেনিস্তানের আশখাবাত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়। মেরামত শেষে প্রায় ৪ ঘণ্টা পর হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে উড়োজাহাজটি।
উড়োজাহাজের ইঞ্জিন অয়েলের ট্যাংকের একটি নাট ঢিলে থাকায় ওই বিপত্তি ঘটে। এর পেছনে নাশকতা ছিল কি না, তা খতিয়ে দেখতে বিমান মন্ত্রণালয়, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ তিনটি তদন্ত কমিটি করে।
প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে ঘটনার তিন দিনের মাথায় বিমানের পাঁচ প্রকৌশলীসহ ছয়জনকে সামিয়ক বরখাস্ত করা হয়। এরা হলেন- প্রকৌশল কর্মকর্তা এস এম রোকনুজ্জামান, সামিউল হক, মিলন চন্দ্র বিশ্বাস, লুৎফুর রহমান, জাকির হোসাইন ও টেকনিশিয়ান সিদ্দিকুর রহমান। পরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের তদন্ত কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আরও তিন প্রকৌশলীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।
তারা হলেন- বিমানের চিফ ইঞ্জিনিয়ার (প্রডাকশন) দেবেশ চৌধুরী, চিফ ইঞ্জিনিয়ার (কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স) এস এ সিদ্দিক ও প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার (সিস্টেম অ্যান্ড মেইনটেইনেন্স) বিল্লাল হোসেন।- বিডিনিউজ