প্রধানমন্ত্রী ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কথা চিন্তা করে আলাদা সেল চালু করেছেন : খাদ্যমন্ত্রী

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১, ১:১১ অপরাহ্ণ

আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি:


বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আলাদা একটি সেল খুলেছেন বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি। তিনি বলেন, সেই সেলে একজন ডাইরেক্টর থেকে শুরু করে কর্মকর্তা ও কর্মচারীও নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এই গোষ্ঠির সার্বিক উন্নয়নের কথা মাথায় রেখে বর্তমান সরকার নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।
মন্ত্রী আরো বলেন, ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী যখন শিক্ষিত হবে তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়াামী লীগ সরকার ভিন্ন মন্ত্রণালয় করে দেওয়ারও আশা রাখে। সেই ভাবে নিজেদেরকে আগে তৈরি করতে হবে। সেভাবে তৈরি না করলে বোকা হয়ে থাকলে আর এনজিওদের পিছনে পিছনে ঘুরে মিছিল করলে মন্ত্রণালয় পাওয়া যাবে না। এটার যেন সঠিক পরিকল্পনা দরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটার জন্য সেই পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। উনি যেভাবে বলেন সেভাবে আপনাদেরকে শিক্ষিত হতে হবে এবং নিজেদেরকে গড়ে তুলতে হবে।
মন্ত্রী শনিবার জেলার সাপাহার উপজেলার কাতিপুর কালিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে বাস্তবায়ননাধীন ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি ও শিক্ষা উপকরন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার আগে আমরা দেখেছি ও যত মিটিং করেছি আদিবাসীদের এই রকম চেহারা দেখি নাই। আদিবাসীদের ভালো কাপড় পরা দেখি নাই, পায়ে কোন জুতা ছিল না, এখন আদিবাসীরা ভালো জামা কাপড় পড়ে, জুতা পরে এবং জীবন মানের উন্নতি হয়েছে।
পরে মন্ত্রী সমতল ভূমিতে বসবাসরত নৃ-গোষ্ঠীর আর্থসামাজিক মান উন্নয়নের লক্ষ্যে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ১২০টি পরিবারের মাঝে ১২০টি গরু, ৫টি টিন, ১২০টি ইট, ৪টি খুঁটি ও ৫০দিনের খাদ্য বিতরণ করেন। এছাড়াও প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করেন।