‘প্রেতাত্মাদের দখলে’ সুইডেনের রাজকীয় প্রাসাদ

আপডেট: জানুয়ারি ৬, ২০১৭, ১২:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



সুইডেনের রানি সিলভিয়া বিশ্বাস করেন, তার রাজকীয় প্রাসাদ প্রেতাত্মারা দখল করে নিয়েছে। এক তথ্যচিত্রে তিনি তার এই বিশ্বাসের কথা ব্যক্ত করেছেন।
বিবিসি বলছে, বৃহস্পতিবার সুইডেনের টেলিভিশনে এই তথ্যচিত্র সম্প্রচারিত হওয়ার কথা রয়েছে।
রানি বলেন, তার সপ্তদশ শতকের রথনিংহোম প্রাসাদে তিনি “ক্ষুদ্র বন্ধুদের…প্রেতাত্মাদের” সঙ্গে ভাগাভাগি করে রয়েছেন। তিনি বলেন, “এটি সত্যিই খুব উত্তেজনাপূর্ণ বিষয়। কিন্তু ভয় পাওয়ার কিছু নেই।”
স্টকহোমের কাছে প্রাসাদটির অবস্থান। এটি রানি সিলভিয়া ও তার স্বামী রাজা কার্ল ষোড়শ গুস্তাফের স্থায়ী আবাস।
‘রথনিংহোম প্যালেস: অ্যা রয়্যাল হোম’ শিরোনামের তথ্যচিত্রটি এসভিটি টেলিভিশন চ্যানেল তৈরি করেছে।
তথ্যচিত্রে রানি বলেন, “কখনো কখনো মনে হবে আপনি সম্পূর্ণ একা নন।[…] তারা খুবই বন্ধুভাবাপন্ন।”
তথ্যচিত্রে সাক্ষাৎকার দেয়া রাজার বোন প্রিন্সেস ক্রিস্টিনাও রানির এই দাবিকে সমর্থন করেছেন।
বিষয়টি নিয়ে সুইডেনের ওয়েবসাইট দ্য লোকাল মজা করে বলেছে, “সাহসী অপেশাদার প্রেতাত্মা শিকারীরা” ওই প্রাসাদে গিয়ে এই গুজব পরীক্ষা করে দেখতে পারে। ৭৩ বছর বয়সী রানি সিলভিয়া ৪০ বছর আগে রাজা কার্লকে বিয়ে করেছিলেন। সিলভিয়াই এখন সুইডেনে সবচে বেশি সময় ধরে রানির আসনে রয়েছেন। রানির বাবা ছিলেন জার্মানির একজন ব্যবসায়ী আর মা ব্রাজিলের।
২০১৫ সালে প্রকাশিত ‘দ্য রয়্যাল ইয়ার’ নামের একটি বইয়ে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রানি বলেন, রানি হিসেবে প্রথম বছর তিনি খুব নিঃসঙ্গ ছিলেন। তিনি আবিষ্কার করেন, পুরুষনিয়ন্ত্রিত একটি প্রাসাদে থাকা খুব কঠিন।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ