প্রেমিককে ঠকাতে ডলার খেয়ে হাসপাতালে

আপডেট: মে ১৩, ২০১৭, ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



এক সময় প্রেমের সম্পর্ক ছিল, এখন সে সম্পর্কে ভাটা পড়েছে। ফলে ভাগ হচ্ছে সবকিছু। কিন্তু যখন ডলার ভাগের প্রসঙ্গ এলো তখনই বেঁকে বসল চতুর প্রেমিকা। সে চাতুরির আশ্রয় নিয়ে খেয়ে ফেলল ৯ হাজার ডলার।
কলম্বিয়ার ২৮ বছর বয়সী এক তরুণী সম্প্রতি এমন কা- করে খবরের শিরোনাম হয়েছেন। এপ্রিলের ২২ তারিখ সান্দ্রা মিলেনা আলমেইদা পেটে প্রচ- ব্যথা নিয়ে হসপিটাল অফ সানটেন্ডারে ভর্তি হন। চিকিৎসকেরা ভেবেছিলেন আলমেইদার সম্ভবত গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা হচ্ছে। পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হওয়ায় তাকে ইমার্জেন্সি সার্জারি করতে অপারেশন রুমে নিয়ে যান তারা। অপারেশনের পর রীতিমতো হতবাক হন উপস্থিত সবাই। আলমেইদার পাকস্থলি অনেকগুলো শত ডলারের নোটে পরিপূর্ণ ছিলো!
চিকিৎসকেরা তার পেট থেকে বেশিরভাগ ডলার বের করে আনতে সক্ষম হয়েছেন। কিছু ডলার রোগীর কোলনের মাধ্যমে বের করা ছাড়া উপায় ছিলো না। যাই হোক, মোট ৫৭০০ ডলার অক্ষত অবস্থায় পেট থেকে বের করা হয়। এ ঘটনা যেহেতু বিরল, তাই অপারেশনের পর জ্ঞান ফিরলে আলমেইদাকে প্রশ্ন করেন ডাক্তাররা- কেন এতোগুলো ডলার গলাধঃকরণ করেছেন তিনি?
উত্তর শুনে আরেকবার বিস্মিত হন তারা। আলমেইদা জানিয়েছেন, তিনি প্রেমিককে নিয়ে পানামাতে গিয়ে নতুন জীবন গড়ার স্বপ্ন দেখছিলেন। যে কারণে দুজন মিলে অর্থ জমা করছিলেন। তবে এরই মাঝে তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। ফলে প্রেমিকপ্রবর তার কাছে জমানো ডলারের অর্ধেক দাবি করে। যেহেতু প্রেমের সম্পর্ক আর নেই। তাই ডলার না দিয়ে বরং সেগুলো নিজেই আত্মসাৎ করার সিদ্ধান্ত নেন আলমেইদা!
কীভাবে কাজটি করা যায় বুঝতে না পেরে সে ডলার গিলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। যাতে প্রেমিক সেগুলো খুঁজে না পায়। প্রথমে ডলারগুলো ভাঁজ করে গিলে ফেলে সে। এরপর সে পানি পান করে। তবে এমন কা- ঘটানোর পর বেশিক্ষণ স্বস্তিতে থাকতে পারেনি আলমেইদা।
হঠাৎ করেই পেটে খুব ব্যথা অনুভব করে সে এবং বাধ্য হয়ে হাসপাতালে ছুটে যায়। অপারেশন শেষে ৫৭০০ ডলার নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন আলমেইদা। সেগুলোর অর্ধেক প্রেমিককে দেবেন কি না হাসপাতাল ছাড়ার সময় এই প্রশ্নের উত্তর দেননি তিনি।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ