‘প্রোপাগান্ডা ছড়িয়ে কাঁচির জোয়ারকে থামানো যাবে না: অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা’

আপডেট: জানুয়ারি ৭, ২০২৪, ১২:২১ অপরাহ্ণ

ভোট দিলেন স্বতন্ত্রপ্রার্থী অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:


জনবিচ্ছিন্ন হয়ে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে প্রশ্ববিদ্ধ করাসহ ভোটারদের মাঝে প্রোপাগান্ডা ছড়িয়ে  কাঁচির জোয়ারকে থামানো যাবে না। সব ষড়যন্ত্রে ব্যর্থ হয়ে ভোটের আগের রাতে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের বানোয়াট বক্তব্য অনলাইনে ছড়িয়ে সাধারণ ভোটারদের বিভ্রান্ত করছে ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ফজলে হোসেন বাদশা।

এছাড়া ফজলে হোসেন বাদশা আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন  কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা।

রোববার (৭ জানুয়ারি) নগরীর চারখুটা ইউসেপ মোমেনা স্কুল কেন্দ্রে বেলা ১০ টায় নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন তিনি।

কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা আরও বলেন, অধিকংশ ভোট কেন্দ্রে কাঁচি প্রতীকের ব্যপক সমর্থন দেখেছি।

ভোটাররা ভোট দিচ্ছেন। তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশার লোকজন গুজব ছড়াচ্ছেন। তবে সকল গুজব, ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে কাঁচি প্রতীকের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তিনি। এরআগে, নগরীর ভোট কেন্দ্রগুলো ঘুরে দেখেন অধ্যক্ষ বাদশা।

এসময় তার সঙ্গে ছিলেন,  রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মো. মোসাব্বিরুল ইসলাম।উল্লেখ্য, রাজশাহী সদর আসনে মোট ভোটার ৩,৫২,৭৮৩ জন। এই আসন থেকে মোট প্রতিন্দ্বন্দ্বিতা করছেন ৭ জন প্রার্থী।

সকাল ৮টা থেকে একযোগে ১১২ টি কেন্দ্রে ভোটা গ্রহণ চলছে। এখন পর্যন্ত সদর আসনে তেমন কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।