ফরাসি পতাকা ‘শয়তানের প্রতীক’! কটাক্ষ করে ফ্রান্স হতে মুসলিম ধর্মগুরু বহিষ্কৃত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪, ১:৪৭ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:জাতীয় পতাকাকে অপমানের জের! ফ্রান্স থেকে বের করে দেয়া হলো মুসলিম ধর্মগুরুকে। তাঁর দেশ তিউনিশিয়ায় ফেরত পাঠানো হলো। অভিযোগ, ফরাসি তেরঙা জাতীয় পতাকাকে শয়তানের প্রতীক বলে উল্লেখ করেছিলেন ওই ধর্মগুরু। সোশাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্টের পরই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের ১২ ঘণ্টার মধ্যে ফ্রান্স থেকে বহিষ্কার করা হয় তাঁকে।

ফরাসি অভিযুক্ত ধর্মগুরু মাহজব মাহজবি এটাউবা মসজিদের ইমাম ছিলেন। আদপে তিনি তিউনিশিয়ার বাসিন্দা। ফ্রান্সের মসজিদে ইমাম হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। অভিযোগ, সোশাল মিডিয়ায় ফ্রান্সের জাতীয় পতাকাকে ‘অপমান’ করে। শয়তানের প্রতীক বলে কটাক্ষ করেন। যদিও অভিযুক্তের দাবি, তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখা করা হয়েছে। ভুল বোঝানো হচ্ছে। তিনি কখনওই জাতীয় পতাকার অপমান করতে চাননি। ফ্রান্সের ‘বহিষ্কারে’র সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হবেন মাহজবি।

ফরাসি মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, দেশে মাহজবি ইসলামের পিছিয়ে পড়া, অসহিষ্ণু এবং হিংসার দিক তুলে ধরেছে। যা ফ্রান্সের অন্দরে নারীদের অসম্মানের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করেছে। এমনকী, কট্টরপন্থাকে উসকানি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ। ধর্মগুরুকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর ১২ ঘণ্টার মধ্যেই তাঁকে তিউনিশিয়ার বিমানে চাপিয়ে ফেরত পাঠানো হয় তাঁর দেশে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Exit mobile version