ফরাসি প্রেসিডেন্টের বক্তৃতার সময় ভুল করে পুলিশের গুলি

আপডেট: মার্চ ২, ২০১৭, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পশ্চিম ফ্রান্সে একটি অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলন্দ বক্তৃতা দেওয়ার সময় পুলিশের এক লক্ষ্যভেদী দুর্ঘটনাবশত গুলি করলে দুই জন আহত হন।
প্যারিস ও বোর্দোর মধ্যে স্থাপিত উচ্চগতির একটি রেলওয়ে লাইন উদ্বোধনের জন্য ওলন্দ পশ্চিম ফ্রান্সের ভিলোগনন শহরে গিয়েছিলেন, জানিয়েছে বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান।
সেখানে একটি প্যান্ডেল ঘেরা ককটেল পার্টিতে ওলন্দ ভাষণ দিচ্ছিলেন। তিনি ভাষণ শুরু করার কিছুক্ষণের মধ্যেই গুলির শব্দ হয়।
যেই প্যান্ডেলের ভিতরে ওলন্দ ভাষণ দিচ্ছিলেন সেখান থেকে ১০০ মিটার উপরে একটি ছাদে পুলিশের ওই লক্ষ্যভেদী অবস্থান নিয়েছিলেন। অবস্থান পরিবর্তন করার সময় হোঁচট খেলে তার রাইফেল থেকে গুলি বের হয়ে যায়।
গুলি প্যান্ডেলের শামিয়ানার ভিতর দিয়ে ঢুকে যেখানে পানীয় প্রস্তুত করা হচ্ছিল সেখানে গিয়ে দুজনকে আহত করে। গুলি এক ওয়েটারের ঊরু ভেদ করে রেলওয়ের এক কর্মীর পায়ের পাতায় গিয়ে লাগে। তবে কারো আঘাতই গুরুতর নয়।
গুলির শব্দ শুনে প্রেসিডেন্ট ওলান্দ থেমে যান। বাম দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে তিনি বলেন, “গুরুতর কিছু হয়নি বলে আশা করছি।” এই বলে শব্দ যেদিক থেকে এসেছে ফের সেই বাম দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে তারপর বলেন, “মনে হয়না তেমন কিছু।”
এ সময় ভাষণ থামিয়ে কারো আঘাত লেগেছে কিনা তাও জিজ্ঞেস করেন তিনি। পরে ভাষণ শেষে আহতদের দেখতে যান।
স্থানীয় এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই লক্ষ্যভেদীর অস্ত্রটির সেফটি ক্যাচ খোলা ছিল, তাই ঝাঁকি খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে গুলি বের হয়ে যায়। এ বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভিলোগননের স্থানীয় সরকার প্রধান পিয়েরে এন’গাহানি।
ওই পুলিশ কর্মকর্তার অস্ত্র থেকে দুর্ঘটনাবশত গুলি বের হয়ে গিয়েছিল কিনা, এমন প্রশ্নে এন’গাহানি বলেছেন, “হ্যাঁ, কোনো সন্দেহ নেই।”
ওই লক্ষ্যভেদী পুলিশের স্পেশাল প্রটেকশন ইউনিটের সদস্য বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ