ফিরে দেখা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় || বড় বাজেটের উন্নয়ন প্রকল্পসহ এগিয়ে যাওয়ার বছর

আপডেট: ডিসেম্বর ২৭, ২০১৬, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

রফিকুল ইসলাম



অবকাঠামো নির্মাণ, সংস্কার কাজসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকার উন্নয়ন প্রকল্প একনেকে অনুমোদন হয়েছে ২০১৬ সালে। এছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকা-ের মধ্য দিয়ে চলতি বছরে অবকাঠামো ও শিক্ষাসহায়ক সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির মাধ্যমে উন্নয়নের পথে সামনে এগিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদালয়। ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রম ডিজিটাল সিস্টেমের আওতায় আনার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে এ বছর। শহিদ শামসুজ্জোহার স্মরণে নির্মিত জোহা চত্বরের সংস্কার কাজ কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার পথে। শহিদ বৃদ্ধিজীবীদের স্মরণে স্মৃতিফলকের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধারাবাহিক সিনেট অধিবেশন ধারাবাহিকতার পথে গত বছরের পর এ বছরও অনুষ্ঠিত হয়েছে। জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে রাবি ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্মরণকালের বৃহৎ ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশ। স্টেশনের পরিত্যক্ত কক্ষে জন্ম নেয়া শিশু ও তার মায়ের পাশে দাঁড়িয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে রাবি শিক্ষার্থীরা। অলিম্পিকে এ বছর বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছে দেশসেরা অ্যাথলেট রাবি শিক্ষার্থী শিরিন আকতার। বছরজুড়ে এমনি বেশ কিছু ইতিবাচক ঘটনায় সমৃদ্ধ হয়েছে উত্তরবঙ্গের সর্বশ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।
৩৬৩ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন : ২০১৬ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বড় ইতিবাচক ঘটনা হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে ৩৬৩ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন। গত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন হয়। চার বছর মেয়াদী এ উন্নয়ন প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে ছাত্রীদের জন্য ‘শেখ হাসিনা’ ও ছাত্রদের জন্য ‘এএইচএম কামারুজ্জামান’ নামে ১০ তলা বিশিষ্ট দু’টি আবাসিক হল, শিক্ষকদের একটি আবাসিক ভবন, ২০ তলা বিশিষ্ট বিজ্ঞান ভবন, চারতলা বিশিষ্ট শেখ রাসেল মডেল স্কুল নির্মাণ করা। এছাড়া নির্মাণাধীন শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল তিনতলা থেকে ছয়তলা, কৃষি অনুষদ, সৈয়দ ইসমাঈল হোসেন সিরাজী ও চতুর্থ বিজ্ঞান ভবনের বাকি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন, কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তন শীততাপ নিয়ন্ত্রিত করা, পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও সড়ক উন্নত করা, ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারে চারপাশের দেওয়াল সংস্কার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে পারাপারে ফুট ওভারব্রিজ করার পরিকল্পনা রয়েছে প্রকল্পে।
শহিদ বৃদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক নির্মাণ : মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশে যেসব বুদ্ধিজীবী শহিদ হয়েছেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক’-এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে গত ১০ আগস্ট। স্মৃতিফলকটি নির্মাণ করতে প্রায় ৬১ লক্ষ টাকা ব্যয় হবে। এটির নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পথে।
৬৮ কৃতী শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক প্রদান : কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৮ শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয় গত ২১ সেপ্টেম্বর। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। অনুষ্ঠানে ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ¯œাতক এবং ২০১০, ২০১১, ২০১২ ও ২০১৪ সালে ¯œাতোকত্তর পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদগুলোতে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হওয়া ৬৪ শিক্ষার্থীকে অগ্রণী ব্যাংক স্বর্ণপদক, তিন জনকে মমতাজ উদ্দিন স্বর্ণপদক এবং একজনকে ডা. একে খান স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়।
জঙ্গিবাদের প্রতিবাদে স্মরণকালের বৃহৎ সমাবেশ: দেশে ঘটে যাওয়া জঙ্গি কার্যক্রমের প্রতিবাদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে গত পহেলা আগস্ট অনুষ্ঠিত হয় স্মরণকালে বৃহৎ সমাবেশ। এদিন বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক-রাজনৈতিক সংগঠন, ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অংশগ্রহণে প্রায় দুই কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে থেকে কাজলা পর্যন্ত এবং কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে দিয়ে রবীন্দ্র ভবন পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে জঙ্গিবাদবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা। কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় তিন সহ¯্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
সিনেট অধিবেশনে ৪৯০ কোটি টাকার বাজেট অনুমোদন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের জন্য ৪৯০ কোটি ৬১ লাখ টাকার বাজেট প্রস্তাবের অনুমোদন এবং ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের ৩৯১ কোটি ৪৮ লাখ টাকার সংশোধিত বাজেট অনুমোদন হয় গত ১৯ মে অনুষ্ঠিত সনেট অধিবেশনে। ২২তম এ সিনেট অধিবেশনে ৫৫ জন সিনেটর উপস্থিত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০তম সিনেট অধিবেশন হয় ২০০১ সালে। এরপর ১৪ বছর বিরতির পর ২০১৫ সালে ২১তম সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর ২২তম সিনেট অধিবেশনের মাধ্যমে সিনেট অধিবেশন ধারাবাহিক হলো।
অত্যাধুনিক এডিটিং প্যানেল স্থাপন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগে চার লাখ টাকা ব্যয়ে স্থাপন করা হয়েছে অডিও-ভিজ্যুয়াল এডিটিং প্যানেল। গত ২৮ সেপ্টেম্বর বিভাগের এডিটিং ল্যাবে প্যানেলটি উদ্বোধন করেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহম্মদ মিজানউদ্দিন। এই প্যানেলের মাধ্যমে বিভিন্ন অডিও-ভিজ্যুয়াল প্রযোজনা এবং সম্পাদনা করা যাবে এবং বিভাগের ¯œাতক ও ¯œাতকোত্তর মিডিয়া স্টাডিজ কোর্সের ব্যবহারিক কার্যক্রমে প্যানেলটি কার্যকর ভূমিকা রাখবে।
অলিম্পিকে রাবি শিক্ষার্থী শিরিন : এবছর ব্রাজিলে অনুষ্ঠিতব্য রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণে করেন বাংলাদেশের দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। শিরিন আক্তারের রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণের ঘটনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়াঙ্গনে বয়ে যায় খুশির জোয়ার। শিরিনের বাড়ি সাতক্ষীরা জেলায়। এর আগে ১৯৮৪ সালে অলিম্পিক আসরে বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকা ওড়ান সে সময়ের দ্রুততম মানব সাইদুর রহমান ওরফে ডন। তিনিও ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। ৩২ বছর পর আবার কোন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবার অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করেন। জাতীয় অ্যাথলেটিকসে শিরিন টানা তৃতীয়বারের মতো ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সেরা হয়েছে।
ক্যাম্পাসে দেড় হাজার বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি: গত বর্ষা মৌসুমে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বনজ, ফলদ ও ঔষধি গাছের প্রায় দেড় হাজার চারা রোপণ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ‘গাছ লাগান পরিবেশ বাঁচান’ শীর্ষক স্লোগানকে সামনে রেখে গত ৩০ জুলাই শহিদ হবিবুর রহমান হল মাঠের উত্তর পাশে একটি চারা রোপণ করে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন। বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি প্রকল্পের অধীনে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হয়।
গণিতের জ্ঞান চর্চায় গণিত অলিম্পিয়াড : ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় ৮ম আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াড। বিশ^বিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের ১৬০ জন প্রতিযোগী অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করেন। পরীক্ষার মাধ্যমে তাদের মধ্যে থেকে সেরা ১০ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। বিজয়ীদের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের আজহারুল ইসলাম।
আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন রাবি : আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে এ বছর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়কে ২৭ রানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। গত ১৫ মার্চ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। ম্যান অব দ্য ফাইনাল নির্বাচিত হন রাবির বোলার অপু। ম্যান অব দ্য সিরিজ নির্বাচিত হন রাবির সুমন।
আশ্রয় পেল স্টেশনে জন্ম নেয়া ‘স্বপ্ন’ : গত ৭ অক্টোবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘটে এক বিরল ঘটনা। বিশ্ববিদ্যালয় রেল স্টেশনের একটি পরিত্যক্ত কক্ষে সন্তান প্রসব করেন কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন ও বাকহীন এক নারী। মধ্যরাতে সন্তান প্রসব করা সেই মা ও তার সদ্যজাত শিশুর পাশে দাঁড়ান রাবির কয়েকজন শিক্ষার্থীরা। তারা নিজেরা অর্থ দিয়ে ও অন্যদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে মা শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। শুধু তাই নয় হাসাপাতল থেকে রিলিজ পাওয়ার পর নাম পরিচয়হীন সেই মা ও শিশুর যতেœর ভার নিজেদের কাঁধে তুলে নেন তারা। পরে নগরীর একটি আশ্রমে মা ও শিশুর ঠাঁই হয়। ওই নারীর পরিবারেরও খোঁজ মেলে। পরে পরিবারের কাছে তাকে হস্তান্তর করা হয়। অসহায় মা ও শিশু খুঁজে পায় আশ্রয়।
নানা নেতিবাচক ঘটনার ঘনটায় এসব ঘটনা আশা জাগায় মানুষের মনে। এ বছরের মতো আসন্ন বছরেও নানা ইতিবাচক ঘটনায় সমৃদ্ধ হবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, এমনটাই প্রত্যাশা শিক্ষক-শিক্ষার্র্থী সবার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ